আরিফকে সমর্থন দিয়ে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ঘোষণা মজলিস প্রার্থীর

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীকে সমর্থন দিয়ে সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন খেলাফত মজলিস মনোনীত মেয়র প্রার্থী দলটির মহানগরের সাধারণ সম্পাদক কে এম আবদুল্লাহ আল মামুন। 

বৃহস্পতিবার বিকেলে সিলেট প্রেসক্লাবের আমীনুর রশীদ চৌধুরী মিলনায়তনে খেলাফত মজলিস সিলেট মহানগর আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন তিনি। দলের পক্ষে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘একটি নির্বাচনমুখী দল হিসেবে খেলাফত মজলিস কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে তাকে নির্বাচনে অংশ নিতে বলা হয়েছিল। এ ঘোষণার পর দলের নেতাকর্মীরা তার পক্ষে প্রচারণা শুরুও করেন। ইতিমধ্যে তিনি নির্বাচনের মনোনয়নপত্রও সংগ্রহ করেছেন।

তবে, সিসিক নির্বাচনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় এ নির্বাচনেও সকলের ঐক্যমতের ভিত্তিতে একক প্রাথী দিয়ে জোটবদ্ধ ভাবে নির্বাচন পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেয় ২০দলীয় জোট। খেলাফত মজলিস জোটের অন্যতম শরীক দল হিসেবে জোটের এ সিদ্ধান্তে ঐক্যমত পোষণ করে। এর প্রেক্ষিতে সিসিক নির্বাচনে একক প্রার্থী মনোনয়নের লক্ষ্যে বেশ কয়েকবার ২০ দলীয় জোটের কেন্দ্রিয় কমিটির বৈঠক অনুষ্টিত হয়। উক্ত বৈঠক সমূহে খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রিয় নেতৃবৃন্দ জোটের কাছে খেলাফত মজলিস মনোনীত প্রার্থীকে জোট মনোনীত প্রার্থী ঘোষণা দেয়ার জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যান।

তবে জোটের কেন্দ্রীয় কমিটি বৈঠকে ঐক্যমতের ভিত্তিতে সিলেটে আরিফুল হক চৌধুরীকে একক প্রার্থী ঘোষণা করায় দলের সিদ্ধান্তে তিনি এবং তার দল নির্বাচন থেকে সরে দাড়াচ্ছেন এবং কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুযায়ী আরিফুল হক চৌধুরীর পক্ষে কাজ করে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করছেন।’

সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, ‘খেলাফত মজলিসের প্রার্থীতা প্রত্যাহার কিন্তু নির্বাচনী মাঠ থেকে সরে দাঁড়ানো নয়। সিসিক নির্বাচনে ২০ দলীয় জোট প্রার্থীর পক্ষে আমাদের সরব উপস্থিতি থাকবে। তাই সাংবাদিকদের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনকে জানিয়ে দিতে চাই যে, জাতির বৃহত্তর স্বার্থে একটি অবাধ ও সুষ্ঠ নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দেয়ার জন্য। আর এজন্য নির্বাচন কমিশনকে যেকোন ধরণের সহযোগিতা করতে খেলাফত মজলিস সদা প্রস্তুত রয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে খেলাফত মজলিস সিলেট মহানগর সভাপতি অধ্যাপক বজলুর রহমান, মহানগর শ্রম সম্পাদক মাওলানা মাশুক আহমদ, প্রশিক্ষণ সম্পাদক ডা. ফয়জুল হক, নির্বাহী সদস্য জুবায়ের আহমদ, মাওলানা আলী খান উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন