আতাউর রহমান আতার ৫ম আলোকচিত্র প্রদর্শনীর সমাপনী

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন, আতাউর রহমান আতার ফটোগ্রাফি সিলেটের অনেক ঐতিহাসিক ঘটনার সাক্ষী। সিলেটে আরেক আতা সৃষ্টি করা কঠিন। আতাউর রহমানকে জাতীয়ভাবে মূল্যায়ন করা দরকার।

সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সহ-সভাপতি, প্রবীণ ফটো সাংবাদিক আতাউর রহমান আতা’র ৫ম একক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। শনিবার দুপুরে সিলেট প্রেসক্লাব ভবনে চার দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী শেষ হয়।

প্রদর্শনী উদযাপন কমিটির আহবায়ক আব্দুল বাতিন ফয়সলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠাবে বিশেষ অতিথির বক্তব্য সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবির, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ।

প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির বলেন, চিত্র সাংবাদিকতায় আতাউর রহমান আতা বর্তমান প্রজন্মের জন্য একজন আদর্শ। তাঁর মতো একজন একনিষ্ঠ ও সফল চিত্র সাংবাদিক গড়ে তোলা কঠিন। চিত্র সাংবাদিকদের পেশাগত উৎকর্ষতা সাধনে প্রশিক্ষণসহ যে কোন প্রয়োজনে সিলেট প্রেসক্লাব তাদের পাশে থাকবে।

ইকবাল মাহমুদ বলেন, আতাউর রহমান আতা সাংবাদিকতায় যেমন সুপরিচিত ও সফল, তেমনি ব্যক্তি জীবনে তিনি একজন সাদামনের মানুষ। নিজের মেধা ও আন্তরিকতায় তিনি দীর্ঘ ৪৫ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশায় সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। তাঁর কাছ থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার রয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে আব্দুল বাতিন ফয়সল বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময় থেকে সিলেটের প্রতিটি ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী তিনি। ১৯৯৬ সালে তাঁর ক্যামেরায় তোলা ছবিতে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী পোস্টার ছাপানো হয়। তিনি শুধু সিলেটের নয়, জাতীয় সম্পদ।

চিত্র প্রদর্শনী উদযাপন কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. দুলাল হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন স্বাগত বক্তব্য দেন সদস্য সচিব শেখ আশরাফুল আলম নাসির। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সিলেট প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি এম এ হান্নান, সিলেট ফটোগ্রাফিক সোসাইটির সভাপতি ফরিদ আহমদ, দৈনিক সংগ্রামের ব্যুরো প্রধান কবির আহমদ, বাংলাটিভি ইউকে’র ব্যুরো প্রধান আবু তালেব মুরাদ, প্রবাসী সাংবাদিক সাঈদ চৌধুরী প্রমুখ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ মো. রেনু, টেলিভিশন সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কামকামুর রাজ্জাক রুনু, ডেইলি ট্রাইব্যুনালের সিলেট প্রতিনিধি আব্দুর রাজ্জাক, কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সহ-সভাপতি গল্পকার সেলিম আউয়াল, প্রেসক্লাবের পাঠাগার ও প্রকাশনা সম্পাদক খালেদ আহমদ, প্রেসক্লাব সদস্য ছিদ্দিকুর রহমান, মো. আমিরুল ইসলাম চৌধুরী এহিয়া, ফটোজার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শংকর দাশ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আশকার ইবনে আমিন রাব্বি, প্রেসক্লাব সদস্য শাহ মো. কয়েছ আহমদ, ইদ্রিছ আলী, দৈনিক জালালাবাদের স্টাফ ফটোগ্রাফার হুমায়ুন কবির লিটন, দৈনিক ভোরের কাগজের ফটো সাংবাদিক সোহেল আহমদ, দৈনিক সিলেট মিরর-এর রিপোর্টার সোহেল আহমদ প্রমুখ।

শেয়ার করুন