স্বাভাবিক জীবনে ফিরল সুন্দরবনের ৫৭ দস্যু

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সুন্দরবনের কুখ্যাত নৌদস্যু, বনদস্যু বাহিনীর প্রধানসহ ছয়টি বাহিনীর ৫৭ সদস্য আত্মসমর্পণ করেছেন। এ সময় তারা বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ জমা দেন।

বুধবার দুপুরে র‌্যাব-৬ খুলনার সদর দফতরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করেন তারা।

এ সময় আত্মসমর্পণকারী বনদস্যুদের প্রত্যেককে পুনর্বাসনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে চেক প্রদান করা হয়।

র‌্যাব-৬ সূত্র জানায়, সুন্দরবন খুলনা অঞ্চলের দাদা ভাই ওরফে রাজন বাহিনী, আমীর আলী বাহিনী ও হান্নান বাহিনী এবং বরিশালের মুন্না বাহিনী, ছোট শামছু বাহিনী ও সূর্য বাহিনী আত্মসমর্পণ করেছে।

দাদা ভাই বাহিনীর ১৫ সদস্য আত্মসমর্পণ করেন। তারা ১২টি অস্ত্র ও ১৭৮ রাউন্ড গুলি জমা দেন। হান্নান বাহিনীর নয় সদস্য আত্মসমর্পণ করেন। তারা আটটি অস্ত্র ও ১৩০ রাউন্ড গুলি জমা দেন। আমির আলী বাহিনীর সাত সদস্য আত্মসমর্পণ করে পাঁচটি অস্ত্র ও ৪১ রাউন্ড গুলি জমা দেন। সূর্য বাহিনীর ১০ সদস্য আত্মসমর্পণ করে। তারা ১১টি অস্ত্র ও ৩৭০ রাউন্ড গুলি জমা দেন।

ছোট শাসছু বাহিনীর নয় সদস্য আত্মসমর্পণ করে ১০টি অস্ত্র ও ৩১০ রাউন্ড গুলি জমা দেন। মুন্না বাহিনীর সাত সদস্য আত্মসমর্পণ করে ১২টি অস্ত্র ও ২৫৫ রাউন্ড গুলি জমা দেন। মোট ছয়টি গ্রুপের ৫৭ জন আত্মসমর্পণ করেন।

অনুষ্ঠানে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি টিপু মুনশি, বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, মিজানুর রহমান এমপি, স্বরাষ্ট্র সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিনসহ নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড ও স্থানীয় প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন