বিমান যাত্রীদের সেবা দিতে লন্ডনে মিট গ্রিট এন্ড এসিস্ট সার্ভিসের চুক্তি স্বাক্ষর

প্রবাস ডেস্ক :: সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি ও এয়ারলাইন্স ক্লাব সিলেটের প্রেসিডেন্ট খন্দকার সিপার আহমদ বলেছেন, সরকারী সেবার পাশাপাশি প্রাইভেট সেক্টরের অনন্য সব সেবা কার্যক্রমের মাধ্যমে বাংলাদেশ আরো সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। আর এই সেবা কার্যক্রমে বিনিয়োগে প্রবাসীরাও যুক্ত আছেন। এছাড়া বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা প্রবাসীরা দেশে গেলে প্রাইভেট সেক্টরের উন্নতিতেও উপকৃত হচ্ছেন। গত ৪ মে শুক্রবার ইস্ট লন্ডনের হোয়াইটচ্যাপেল রোডস্থ ফিস্ট রেস্টুরেন্টে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি কথাগুলো বলেন।

সিলেট এয়ারপোর্টে সিভিল এভিয়েশন অথরিটির অনুমোদিত ও খন্দকার সিপার তথা সিপার এয়ার সার্ভিসের মালিকানাধিন মিট গ্রিট এন্ড এসিস্ট সার্ভিস ইতোমধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। অর্থমন্ত্রী এম এ মুহিত দেড় বছর আগে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

এই মিট গ্রিট এন্ড এসিস্ট সার্ভিসের সাথে পূর্ব লন্ডনের ইমরান ট্রাভলসের চুক্তি স্বাক্ষর উপলক্ষে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে খন্দকার সিপার আরো বলেন, একেবারে নামেমাত্র খরচে, মাত্র ৪/৫ পাউন্ডে যে কোনো যাত্রী আগাম বুকিং দিয়ে সিলেট এয়ারপোর্টে মিট এন্ড গ্রিটের সেবার নিতে পারবেন। বিমানবন্দরে তাঁদেরকে স্বাগত জানানো থেকে শুরু করে লাগেজ অনুসন্ধান ও পরিবহন ব্যবস্থাপনাসহ সবকিছুতেই পাশে থাকবে আমাদের দক্ষ কর্মীরা। বিমানযাত্রীরা বিশেষ ইনিফর্ম পরিহিত এসব কর্মীকে সহজেই চিনতে পারবেন এবং তাদের সহযোগিতায় নিরাপদে এয়ারপোর্ট থেকে বের হয়ে নিজ গন্তব্যে যেতে পারবেন।

অনুষ্ঠানে ইমরান ট্রাভেলসের ডিরেক্টর আশিকুর রহমান, লন্ডন সফররত সিলেট চেম্বার অব কমার্সের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট মাসুদ চৌধুরী, বৃটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের ডেপুটি ডাইরেক্টর জেনারেল বশির আহমদ, ফাইন্যান্স ডাইরেক্টর ও জেএমজি এয়ার কার্গোর চেয়ারম্যান মনির আহমদ, লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নাহাস পাশা, বিমান ট্রাভেলস অ্যাজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান ও হিলসাইট ট্রাভেলসের স্বত্তাধিকারী হেলাল খান, ব্রেন্ট কাউন্সিলের সাবেক মেয়র কাউন্সিলার পারভেজ আহমদ ও ট্রাভেললিংক ট্রাভেলসের ডাইরেক্টর সামি সানাউল্লাহ বক্তব্য রাখেন।

যুক্তরাজ্যে বিমানের সেরা সেইল এজেন্টের পুরস্কার বিজয়ী আশিকুর রহমান বলেন, সিলেটের বিশিষ্ট ব্যবসায়ি খন্দকার সিপার আহমদের মালিকানাধিন মিট গ্রিট এন্ড এসিস্ট যাত্রীসেবার এজেন্সির দায়িত্ব নিয়ে আমি দারুন আনন্দিত। আমি মনি করে এর মাধ্যমে শুধু আমার ট্রাভেলসেরই নয়, যে কোনো এজেন্টের হাজার হাজার যাত্রী সহজে সেবা নিতে পারবেন।

খন্দকার সিপার আহমদ সিলেটে প্রবাসীদের বিনিয়োগের আহবান জানিয়ে বলেন, বিশেষ করে পর্যটন খাতে সিলেটে বিশাল সম্ভবনা রয়েছে। এর প্রমাণ হচ্ছে ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠিত ৩/৪টি ৫ স্টার মানের হোটেল ও রিসোর্ট ভালো ব্যবসা করছে এবং দেশী ও আন্তর্জাতিক পর্যটকদের সেবা দিচ্ছে। এছাড়া সরকার সিলেটে শ্রীহট্র ইকোনমিক জোনসহ দেশে মোট ১৭টি অর্থনৈতিক অঞ্চল করার প্রস্তাব অনুমোদন করেছে। ১৬৩ একর জায়গা নিয়ে সিলেট হাইটেক পার্ক নির্মাণের কাজ উদ্বোধন করেছেন তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী জুনায়েদ আহমদ পলক। এটি সফটওয়্যার টেকনোলজি, আইটি ট্রেনিং প্রজেক্ট সেবা প্রদান ছাড়াও লাখো তরুণের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করবে।

শেয়ার করুন