বালাগঞ্জে ভেজাল বিরোধী অভিযান

বালাগঞ্জ প্রতিনিধি :: বালাগঞ্জের বালাগঞ্জ বাজার, মোরারবাজার ও মাদরাসা বাজারের বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকার আইন-২০০৯’র আওতায় জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

মঙ্গলবার অভিযানে আদালত পরিচালনা করেন বালাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুল হক।

অভিযানে ৭টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে নগদ সাড়ে ৭হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। ভেজাল বিরোধী ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানকালে ভোক্তা অধিকার আইনে মোরারবাজারের মেসার্স রহমানিয়া এণ্টারপ্রাইজ থেকে ১হাজার টাকা, শাহ জালাল হোটেল এন্ড রেষ্টুরেণ্ট থেকে ১হাজার টাকা, আনছার রেস্তোরা থেকে ১হাজার টাকা, বাবুল মিয়ার দোকান থেকে ১হাজার টাকা, জাহেদ আহমদের দোকান থেকে ১হাজার টাকা এবং বিষাক্ত রং মিশ্রিত ভেজাল গুড়া মরিচ ও হলুদ বিক্রির দায়ে ‘অস্থায়ী ব্যবসায়ী’ সাদেক আলীকে নগদ দেড় হাজার টাকা জরিমানার পাশাপাশি অন্তত ১০ কেজি পণ্য জব্দ করে প্রকাশ্যে ধ্বংস করা হয়।

মোরারবাজারে অভিযান শেষে স্থানীয় মাদরাসা বাজারের আনোয়ার রেস্টুরেন্ট থেকে ১হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। অভিযানকালে স্থানীয় সবজিবাজার ও মাছের বাজারের ব্যবসায়ীদের মৌখিকভাবে সর্তক করে দেয়া হয়।

এর আগে গত শনিবার বিকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুল হকের নেতৃত্বে উপজেলা সদর বালাগঞ্জ বাজারে আদালত পরিচালনা করা হয়। ভেজাল বিরোধী ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানকালে ভোক্তা অধিকার আইন-২০০৯’র আওতায় স্থানীয় কাজল মিয়ার ফলের দোকানে নগদ ২হাজার টাকা এবং মনোয়ার মিয়ার ফলের দোকান ও রবীন্দ্র মিষ্টান্ন ভা-ারে ৫শ টাকা করে আরও ১হাজার, মোট ৩হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। এ সময় খাবার অনুপযোগী বিভিন্ন ফলমুল ও মিষ্টান্ন সামগ্রী বাজেয়াপ্ত করা হয়। এমব অভিযানকালে বালাগঞ্জ থানা পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বালাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল হক জানান, ভোক্তা অধিকার নিশ্চিত করতে বাজার মণিটরিং অব্যাহত থাকবে। তিনি এ ব্যাপারে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিকসহ সচেতন নাগরিক সমাজের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

শেয়ার করুন