বার কাউন্সিল নির্বাচনে আওয়ামীপন্থিদের নিরঙ্কুশ জয়

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: আইনজীবীদের সনদ প্রদান ও পেশাগত বিষয়ের সর্বোচ্চ সংস্থা বাংলাদেশ বার কাউন্সিলে নিরঙ্কুশ জয় পেয়েছে সরকার সমর্থক আইনজীবী প্যানেল। নির্বাচিত ১৪টি পদের মধ্যে ১২টিতেই জয় পেয়েছেন তারা।

সারা দেশ থেকে আগত ফলাফল গণনা শেষে শনিবার রাত ৯টার দিকে এই ফলাফল ঘোষণা করা হয়। বার কাউন্সিল ভবনে এই ফলাফল ঘোষণা করেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী এবার সাধারণ ও গ্রুপ আসনে মোট ১৪টি নির্বাচিত পদের মধ্যে ১২টিতে বিজয়ী হয়েছেন সরকার সমর্থকরা। এছাড়া গ্রুপ আসন ও সাধারণ আসনে একটি করে মোট ২টি পদে জয় পেয়েছেন বিএনপি সমর্থকরা।

এবারও সাধারণ আসনে সর্বোচ্চ ভোট পেয়েছেন আওয়ামী সমর্থক প্যানেল থেকে জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আব্দুল বাসেত মজুমদার। মোট ১৬ হাজার ৩০৬ ভোট পেয়েছেন তিনি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ভোট পেয়েছেন বার কাউন্সিলের ফাইন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের আইন সম্পাদক জ্যেষ্ঠ আইনজীবী শ ম রেজাউল করিম। তিনি মোট ভোট পেয়েছেন ১৪ হাজার ৬৬৪।

একই প্যানেল থেকে তৃতীয় সর্বোচ্চ ভোট পেয়েছেন মানবাধিকার কর্মী এইচ এ এম জহিরুল ইসলাম খান (জেড আই খান পান্না)। তিনি মোট ১৪ হাজার ৪৯৭ ভোট পেয়েছেন। আওয়ামী প্যানেলের সৈয়দ রেজাউর রহমান পেয়েছেন ১৪ হাজার ১৮৪, জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন পেয়েছেন ১৪ হাজার ৯৮, মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান বাদল পেয়েছেন ১৩ হাজার ২৮৮ ভোট।

এছাড়া সাধারণ আসনে বিএনপি সমর্থক প্যানেল থেকে একমাত্র বিজয়ী প্রার্থী সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী। তিনি মোট ১৩ হাজার ৭১২ ভোট পেয়েছেন।

গ্রুপ আসনে আওয়ামী সমর্থক প্যানেলে ঢাকা অঞ্চল থেকে কাজী মো. নজিবুল্লাহ হিরু (৫ হাজার ১৭৫ ভোট), বৃহত্তর ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর জেলার আইনজীবী সমিতির (গ্রুপ বি) মো. কবীর উদ্দিন ভূঁইয়া (১ হাজার ৫৬৫ ভোট), বৃহত্তর কুমিল্লা জেলা ও সিলেট জেলা অঞ্চলের আইনজীবী সমিতিতে (গ্রুপ ডি) এ. এফ. মো. রুহুল আনাম চৌধুরী (১ হাজার ৬১৬ ভোট) পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

বৃহত্তর খুলনা, বরিশাল ও পটুয়াখালী অঞ্চলের আইনজীবী সমিতির (গ্রুপ ই) পারভেজ আলম খান (১ হাজার ৮৫৮ ভোট), বৃহত্তর রাজশাহী, যশোর ও কুষ্টিয়া অঞ্চলের আইনজীবী সমিতির (গ্রুপ এফ) মো. ইয়াহিয়া (১ হাজার ৪৬৭ ভোট) এবং বৃহত্তর দিনাজপুর, রংপুর, বগুড়া ও পাবনা জেলার আইনজীবী সমিতির (গ্রুপ জি) রেজাউল করিম মন্টু (১ হাজার ৪৬ ভোট) পেয়েছেন।

আঞ্চলিক আসনে বিএনপি সমর্থক প্যানেল থেকে বৃহত্তর চট্টগ্রাম ও নোয়াখালী জেলার সমিতির (গ্রুপ সি) মো. দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী ১ হাজার ৯৩০) বিজয়ী হয়েছেন।

গত ১৪ মে সারা দেশের জেলা আইনজীবী সমিতি, উপজেলায় অবস্থিত ১২টি সমিতি ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে এই ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ লিগ্যাল প্র্যাকটিশনার্স অ্যান্ড বার কাউন্সিল অর্ডার ১৯৭২ অনুসারে ১৫ সদস্যের কাউন্সিলে অ্যাটর্নি জেনারেল পদাধিকার বলে চেয়ারম্যান। এছাড়া ১৪ জন সদস্য নির্বাচিত হন। যার মধ্যে সাতজন সাধারণ ক্যাটাগরিতে ও সাতজন আঞ্চলিক ক্যাটাগরিতে নির্বাচিত হন। নির্বাচিত এই ১৪ সদস্য নিজেরা ভোটের মাধ্যমে একজন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন। নির্বাচিত কমিটির মেয়াদ হলো তিন বছর।

এদিকে নির্বাচন সংক্রান্ত আপত্তি শুনানির জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি ট্রাইব্যুনাল গঠন করে দেয়া হয়েছে। ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান হলেন- বিচারপতি সৈয়দ আমিরুল ইসলাম। বাকি দু’জন হলেন- বিচারপতি ফরিদ আহমেদ ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. অজি উল্লাহ।

উল্লেখ্য, সবশেষ ২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত বার কাউন্সিল নির্বাচনে ১৪টি পদের মধ্যে ১০টিতে আওয়ামীপন্থি ও ৪টিতে বিএনপিপন্থিরা জয়লাভ করে। সদস্যদের ভোটে পরে অ্যাডভোকেট আব্দুল বাসেত মজুমদার ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

শেয়ার করুন