পর্ন তারকাকে অর্থ পরিশোধের কথা স্বীকার করলেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: শেষ পর্যন্ত আইনজীবীর মাধ্যমে পর্ন তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে অর্থ পরিশোধের স্বীকারোক্তি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দুইজনের সম্পর্কের ব্যাপারে মুখ বন্ধ রাখতে তাকে ওই অর্থ দেওয়া হয়েছিল।

ডোনাল্ড ট্রাম্প, মাইকেল কোহেন এবং স্টর্মি ড্যানিয়েলস। ছবি: বিবিসি।বুধবারযুক্তরাষ্ট্রের গভর্নমেন্ট ইথিক্স বিষয়ক দফতরের পক্ষ থেকে বলা হয়, ট্রাম্প তার আগের আর্থিক বিবরণীতে এ বিষয়ে অর্থ পরিশোধের বিষয়টি উল্লেখ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ওই আর্থিক বিবরণীতে দেখা গেছে, আইনজীবী মাইকেল কোহেনকে ২০১৬ সালের এক ব্যয় বাবদ অর্থ পরিশোধ করেছেন ট্রাম্প। এর পরিমাণ এক লাখ এক ডলার থেকে আড়াই লাখ ডলারের মধ্যে।

এর আগে স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে এক লাখ ৩০ ডলার পরিশোধের কথা অস্বীকার করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তবে এবার হোয়াইট হাউসের এক নোটে বলা হয়েছে, এই অর্থ পরিশোধের ব্যাপারটি ছিল ‘স্বচ্ছতার আগ্রহ’ থেকে।

এ ব্যাপারে তথ্য প্রকাশে অনাগ্রহের কথাও জানায় মার্কিন প্রেসিডেন্টের দফতর। তবে অফিস অব দ্য গভর্নমেন্ট ইথিক্স (ওজিই) প্রধানের লেখা এক চিঠিতে বলা হয়েছে, আইনজীবী মাইকেল কোহেনের অর্থ পরিশোধের বিষয়টি দায় বা বাধ্যবাধকতা বিভাগে রিপোর্ট করা প্রয়োজন।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল রড রোজেনস্টেইনকে লেখা চিঠিতে ওজিই-এর ভারপ্রাপ্ত পরিচালক বলেন, এর অনুসরণের মাধ্যমে আপনি যে কোনও তদন্তের প্রাসঙ্গিক বিষয়বস্তু খুঁজে পেতে পারেন।

এর আগে গত এপ্রিলে ট্রাম্পের আইনজীবী মাইকেল কোহেনের অফিসে হানা দেয় এফবিআই। সেখান থেকে তারা ইমেইল, কর সংক্রান্ত নথি ও ব্যবসায়িক নথির পাশাপাশি স্টর্মি ড্যানিয়েলস সংক্রান্ত নথিও জব্দ করেন। ওই সময়ে নিজ আইনজীবীর অফিসে এফবিআই-এর তল্লাশির ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে তিনি বলেন, ওই অভিযান ‘অসম্মানজনক পরিস্থিতি’ তৈরি করেছে এবং এটি ‘দেশের ওপর চালানো হামলা।’

ট্রাম্পের ভাষায়, ‘আমি দীর্ঘদিন ধরে বলে আসছি, সুনির্দিষ্টভাবে আমাকে লক্ষ্যবস্তু বানানো হচ্ছে। আমি সেটা কমাতে চেয়েছি। লাখ লাখ পৃষ্ঠার নথি আমি বিশেষ তদন্তকারীর হাতে তুলে দিয়েছি।’ ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করলেও ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, তদন্তে যা-ই বেরিয়ে আসুক না কেন, তাতে তিনি চিন্তিত নন। সূত্র: বিবিসি।

শেয়ার করুন