আজ থেকে সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের ক্লাস, পরীক্ষা বর্জন

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীরা ট্রাস্টি বোর্ড গঠন, রাষ্ট্রপতি মনোনীত ভিসি, প্রো-ভিসি, কোষাধ্যক্ষ নিয়োগ সহ চার দফা দাবি আদায়ে ক্লাস ও মিডটার্ম পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে। গতকাল শনিবার আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ক্লাস ও আগামী ২জুন থেকে শুরু হতে যাওয়া মিডটার্ম পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে।

তবে অফিসিয়াল সকল কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানান তারা। এর আগে গত বুধবার একই দাবীতে ৪৮ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন শিক্ষার্থীরা। এদিকে গত কয়েকদিন থেকে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থবিরতা দেখা দিয়েছে। শিক্ষকরাও শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনের সাথে নৈতিকভাবে সমর্থন জানিয়েছেন বলে জানা গেছে।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, দীর্ঘ আট বছর ধরে স্থায়ী ভিসি নিয়োগ ছাড়াই চলছে শিক্ষা কার্যক্রম। খালি রয়েছে প্রো-ভিসি এবং কোষাধ্যক্ষ পদটি। পাশাপাশি রয়েছে শিক্ষক সংকট। এসবের প্রভাব পড়ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রমে। থমকে আছে অবকাঠামো উন্নয়নও। নেই প্রত্যকটি অনুষদের আলাদা আলাদা ডীন। শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে বলেন, কর্তৃপক্ষ দীর্ঘ আট বছর ধরে ট্রাস্টি বোর্ড গঠন, স্থায়ী ভিসি নিয়োগসহ ওই শূণ্য পদগুলো পূরণের আশ্বাস দিলে কার্যত কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। এ বিষয়গুলো নিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা ২০১৭ সালে কর্তৃপক্ষ বরাবরে লিখিত আবেদন দেন। তখন তিন মাসের মধ্যে এ সমস্যাগুলো নিরসনের আশ্বাস দিয়েছিলেন কর্তৃপক্ষ। কিন্তু প্রায় এক বছর পার হয়ে গেলেও কার্যত কোন পদক্ষেপ নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

এদিকে গত মঙ্গলবার (২২ মে) বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমূহের অবস্থা বর্ণনা করে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। সেখানে সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিসহ দেশের বেশ কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে শিক্ষার্থী ও তাদের অভিবাবকদের পরামর্শ দিয়েছে ইউজিসি। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘কেউ অনুমোদনবিহীন কোনো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বা অনুমোদিত বিশ্ববিদ্যালয়ের অননুমোদিত ক্যাম্পাস বা অননুমোদিত কোনো প্রোগ্রামে কোর্সে ভর্তি হলে তার দায়-দায়িত্ব শিক্ষা মন্ত্রণালয় বা ইউজিসি নেবে না’।

ইউজিসির সতর্কতামূলক এই বিজ্ঞপ্তির পর সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি শিক্ষর্থীরা তাদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে আন্দোলনে নামেন। এনিয়ে গত বুধবার থেকে ৪৮ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে স্বারকলিপি প্রদান এবং ক্যাম্পাসে দফায় দফায় বৈঠক করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এতে কোন কাজ না হওয়ায় আজ রোববার থেকে ক্লাস এবং আগামী ২জুন থেকে শুরু হতে যাওয়া মিডটার্ম পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দেন।

আগামী ২জুন থেকে শুরু হতে যাওয়া মিডটার্ম পরীক্ষা এবং সকল ক্লাস পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। তবে অফিসিয়াল সকল কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। এবং পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাবেন তারা।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভিসি প্রফেসর মনির উদ্দিন, প্রক্টর প্রধান মাহবুব ইবনে সিরাজ ও গণ সংযোগ কর্মকর্তা তারেক উদ্দিন তাজের সাথে দফায় দফায় যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও কোনো যোগাযোগ করা যায়নি।

শেয়ার করুন