‘সূর্যোদয় এতিম স্কুল এক আলোকবর্তিকার নাম‘

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সাবেক কমিউনিটি সেক্রেটারি ও ব্রিটবাংলা টোয়েন্টিফোর ডটকম’র নির্বাহী সম্পাদক আহাদ চৌধুরী বাবু বলেছেন, ‘বর্তমান সমাজে অনেক এতিম শিশু অবহেলা-অনাদরে বড় হচ্ছেন। বিশেষ করে এতিম পথশিশুরা সঠিকভাবে ভরণ-পোষণ ও শিক্ষার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়ে জড়িয়ে পড়ছেন অপরাধমূলক কর্মকান্ডে। আর এসব কারণে সমাজে সৃষ্টি হচ্ছে অপরাধীদের। এমনই প্রায় দেড়শ’ এতিম শিশুকে ঝড়ে পড়ার হাত থেকে ফিরিয়ে নিয়ে এসে শিক্ষার সুযোগ করে দেয়া নিঃসন্দেহে সেরা একটি কাজ। এটি সমাজের অন্যদের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। আর সে কাজটিই করে দেখিয়েছেন সূর্যোদয় এতিম স্কুলের সাথে জড়িত সমাজসেবকরা। তারা সম্পূর্ণ মানবসেবার ব্রত নিয়ে যে কাজটি করে যাচ্ছেন সেটিকে সহযোগিতা করা সকলের নৈতিক দায়িত্ব। সূর্যোদয় এতিম স্কুল এক আলোকবর্তিকার নাম।’

রোববার বিকালে সিলেট নগরীর বিমানবন্দর রোডের চৌকিদেখী এলাকার সূর্যোদয় এতিম স্কুলের পাঠদান পরিদর্শনকালে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি স্কুলটির কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে নিজের সাধ্যমত সহযোগিতার আশ্বাস দেন। পাশাপাশি তিনি এ বিষয়টি নিয়ে অন্যদের সাথেও কথা বলবেন বলে আশ্বস্থ করেন।

সূর্যোদয় এতিম স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক মো. হাসান তালুকদার সোহেলের সভাপতিত্বে সহকারী প্রধান শিক্ষক মৌলভী শহীদুল ইসলামের পরিচালনায় পাঠদান পরিদর্শনকালে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক আহাদ চৌধুরী বাবুর সহধর্মীনি প্রবাসী শিক্ষিকা রেবেকা খানম, ব্রিটবাংলা টোয়েন্টিফোর ডটকম’র সিলেট জেলা প্রতিনিধি মিসবাহ উদ্দীন আহমদ।

উপস্থিত ছিলেন স্কুলের কোষাধ্যক্ষ মো. আফজাল হোসেন, স্কুলের শিক্ষক হাফিজ মঞ্জুর আহমদ নোমানি, ইফতি আহমদ, আলোকচিত্রী সাংবাদিক এস এম সুজন এবং স্কুলের শিক্ষিকাসহ সূর্যোদয় যুব সংঘের সদস্যবৃন্দ।

পরে স্কুলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে খাবার বিতরণ করেন সাংবাদিক আহাদ চৌধুরী বাবু ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা। এসময় তার তিন ছেলেও মিশু চৌধুরী, মিতু চৌধুরী ও লিভান চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, সূর্যোদয় যুব সংঘের উদ্যোগে ২০১৫ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি প্রতিষ্টিত হয় সূর্যোদয় এতিম স্কুল। যাত্রার শুরুতে মাত্র ৬ জন এতিম শিশু নিয়ে যাত্রা শুরু করা সূর্যোদয় এতিম স্কুলটিতে বর্তমানে ১৩০ জন এতিম ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষাগ্রহণ করছেন। স্কুলে শিক্ষক-শিক্ষিকারা বিনা বেতনে স্বেচ্ছায় শিক্ষা পাঠদান করছেন।

শেয়ার করুন