সিলেটে পূবালী ব্যাংকের দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: বাংলাদেশ ব্যাংক সিলেট অফিসের মহা-ব্যবস্থাপক জীবন কৃষ্ণ রায় বলেছেন, দেশপ্রেমে উজ্জীবিত হয়ে মানি লন্ডারিং প্রতিরোধে ব্যাংকারদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। একইসাথে ব্যাংকিং সেবায় নৈতিকতার মান অক্ষুন্ন রাখতে হবে, যাতে করে ব্যক্তি ও প্রাতিষ্ঠানিক ক্ষেত্রে সফলতা আসে।

শনিবার সকালে সিলেট শহরতলীর খাদিমনগরের ব্রাক লার্ণিং সেন্টারের সম্মেলন কক্ষে পূবালী ব্যাংক লিমিটেডের প্রধান কার্যালয়ের কমপ্লায়েন্স বিভাগ ও সিলেট প্রিন্সিপাল অফিস এর যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত ‘এএমএল, সিএফটি, আইসিসি, ফরেন রেমিট্যান্স, ইথিক্যাল ব্যাংকিং এন্ড ফাটকা’ বিষয়ক দিনব্যাপী কর্মশালা উদ্বোধন কালে তিনি এসব কথা বলেন।

কর্মশালায় প্রধান রির্সোস পার্সনের বক্তব্য রাখেন, পূবালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের কমপ্লায়েন্স বিভাগের প্রধান ও মহা-ব্যবস্থাপক নীতিশ কুমার রায়। ব্যাংকের সিলেট প্রিন্সিপাল অফিসের উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. মশিউর রহমান খানের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন, মৌলভীবাজার অঞ্চলের প্রধান ও উপ-মহাব্যবস্থাপক দিলীপ কুমার পাল, ব্যাংকের সিলেট পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান ও উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. জিয়াউল হক চৌধুরী ও পূর্বাঞ্চল প্রধান ও উপ-মহাব্যবস্থাপক মাহবুব আহমদ।

সিলেট প্রিন্সিপাল অফিসের এসপিও মো. হুমায়ুন মিয়ার সঞ্চালনায় এতে রির্সোস পার্সন হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন, প্রধান কার্যালয়ের কমপ্লায়েন্স বিভাগের সহকারী মহা-ব্যবস্থাপক মো. জসিম উদ্দিন, সিনিয়র অফিসার ওবায়দুল্লাহ আল মাহমুদ রেফাত ও সিলেট পূর্বাঞ্চলের আঞ্চলিক কার্যালয়ের মূখ্য কর্মকর্তা এস এম মহিদুল ইসলাম।

প্রধান রির্সোস পার্সনের বক্তব্যে নীতিশ কুমার রায় বলেন, গ্রাহকসেবায় নৈতিকতা বজায় রাখার বিষয়টিকে অগ্রাধিকার দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে পূবালী ব্যাংক। এছাড়া, মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ, ঋণ দানে ঝুঁকি নিরুপনসহ সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা যথাযথভাবে পরিপালনের চেষ্টা করে আসছে ব্যাংকটি। গ্রাহক সন্তষ্টির পাশাপাশি যা দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

কর্মশালায় ব্যাংকের সিলেট পূর্ব, পশ্চিম ও মৌলভীবাজার অঞ্চলের মোট ৯১ টি শাখার ব্যবস্থাপক ও সংশ্লিষ্ট শাখা ও আঞ্চলিক কার্যালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ অংশ নেন।

শেয়ার করুন