বাসের চাপে এবার থেঁতলে গেল নারীর ডান পা

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: রাজধানীর ফার্মগেটে বেপরোয়া বাসের চাপায় এক নারীর ডান পা থেঁতলে গেছে।

আজ বুধবার সকাল নয়টার দিকে আনন্দ সিনেমা হলের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

আহত নারীর নাম রুনি আক্তার (২৮)। তিনি র‍্যাংগস প্রপার্টিজ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা। পথচারীরা তাঁকে উদ্ধার করে রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে পাঠিয়েছেন।

নিউ ভিশন নামের বাস ও বাসের চালক মোতালেবকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা। বাসটি মতিঝিল থেকে চিড়িয়াখানা সড়কপথে চলাচল করে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী চার্লস প্রীতম বলেন, আনন্দ সিনেমা হলের সামনে বাস থেমে যাত্রী ওঠা-নামা করে। সেখান সড়কে উঁচু বিভাজক আছে। ওই বিভাজকের ওপর যাত্রীরা দাঁড়ান। সকাল নয়টার দিকে এক নারী সড়ক থেকে উঁচু বিভাজকের ওপর উঠতে যাচ্ছিলেন। এ সময় বেপরোয়া গতির নিউ ভিশন পরিবহনের একটি বাস সড়ক বিভাজক ঘেঁষে এগিয়ে আসে। বিভাজক ও বাসের মাঝে ওই নারীর ডান পা চাপা খায়। এতে তাঁর ডান পায়ের হাঁটু সংলগ্ন অংশ থেঁতলে যায়।চালর্স প্রীতম প্রথম আলোকে বলেন, তিনি উদ্যোগী হয়ে বাস ও বাসের চালককে আটক করেন। পরে অন্যরাও এগিয়ে আসেন। কাছেই পুলিশ বক্স। বাসচালককে পুলিশের কাছে তুলে দেওয়া হয়। আহত নারীকে পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়।

বেলা দুইটা পর্যন্ত রুনি আক্তারের জ্ঞান ফেরেনি বলে জানান তাঁর সহকর্মী আহমেদ আলী। তিনি বলেন, রুনি মাস্টার্স সম্পন্ন করে এমবিএ করেছেন। এরপর র‍্যাংগস প্রপার্টিজে চাকরি করছিলেন। আজ অফিসের যাওয়ার পথে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন তিনি। তাঁর ডান হাঁটুর ওপরের মাংস ছিড়ে গেছে। হাসপাতালে আনার পর দুই ব্যাগ রক্ত দিতে হয়েছে রুনিকে। ডান পা রাখা যাবে কি না, এ ব্যাপারে চিকিৎসকেরা পরে সিদ্ধান্ত জানাবেন।

কয়েক দিন আগেই রাজধানীর কারওয়ানবাজারে দুই বাসের টক্করে এক হাত হারান কলেজছাত্র রাজীব হোসেন। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক।

শেয়ার করুন