তাবলিগের ৬ মুরব্বি কাকরাইল মসজিদে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

সিলেটের সকাল ডেস্ক  :: রাজধানীর কাকরাইল মসজিদে তাবলিগ জামাতের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় ৬ মুরব্বির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞা মুরব্বিরা হলেন- আব্দুল্লাহ মনছুর, ড. এরতেজা হাসান, ইঞ্জিনিয়ার মাহফুজ হান্নান ও ড. আজগর। এছাড়া সৈয়দ ওয়াসিফ ও মাওলানা জুবায়েরকে আগামী ১ মে পর্যন্ত কাকরাইলের বাহিরে থাকতে বলা হয়েছে। সংঘর্ষের পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতিতে মসজিদে জরুরি বৈঠক হয়। বৈঠক এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে জানা যায়।

শনিবার সংঘর্ষের পর দুপুরে অনুষ্ঠিত বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে জানা গেছে।

বৈঠকে সূত্রে জানা গেছে, স্বরাষ্টমন্ত্রী দেশে আসার পর তাবলিগ জামাতের নেতাদের নিয়ে আলোচনার মাধ্যমে সংকটের সমাধান করা হবে। বাইরে থেকে কেউ এসে মসজিদে অবস্থান করতে পারবেন না। তবে নামাজ আদায় করা যাবে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা জোনের অতিরিক্ত কমিশনার (এডিসি) এইচ এম আজিমুল হক ব্রেকিংনিউজকে বলেন, মসজিদে মারামারি ও হট্টগোল এড়াতে বহিরাগতদের বের করে দেয়া হয়েছে এবং তাদেরকে নির্দিষ্ট সময় বেধে দেয়া হয়েছে। মসজিদের কার্যক্রম ঠিকভাবেই চলবে। তবে বাইরে থেকে কেউ এসে মসজিদে থাকতে পারবেন না। তবে যেকেউ নামাজ পড়তে পাড়বেন বলে পুলিশ জানায়।

জানা যায়, বর্তমান মুরব্বি মাওলানা সাদের বিরোধীরা সকালে কাকরাইল মসজিদের সামনে অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে সাদ বিরোধীরা বলেন, মাওলানা সাদ যদি তার বিতর্কিত বক্তব্য থেকে সরে না আসে তাহলে তাকে বাংলাদেশে ঢুকতে দেয়া হবে না। পরে তারা সাদের এক অনুসারিকে মারধর করে। এর সঙ্গে সঙ্গে তাদের দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারি শুরু হয়। এর আগে শুক্রবার রাতে কাকরাইল মসজিদ থেকে জ্যামার (মোবাইল সিগন্যালকে অকার্যকর করে দেয়) উদ্ধার করা হয়।

শেয়ার করুন