‘কবিতা শুধু নান্দনিক বোধ নয় আমাদের চেতনার মানসসত্ত্বাও‘

কবিতাবই ‘জলরঙে আঁকা ছবি’র প্রকাশনা

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: কবিতা শুধুমাত্র নান্দনিক বোধের জগত নয় কিংবা পাশাপাশি শ্রুতিমধুর, শিল্পের স্বাদ সমৃদ্ধ কতগুলো শব্দ প্রয়োগ নয়। কবিতা আমাদের বিপ্লব, প্রতিবাদের ধারলো অস্ত্র, চেতনার মানসসত্ত্বা। কবিতার এই সত্যটি আপাদমস্তক ধারণ করেছেন কবি বদরুজ্জামান জামান। তিনি যে কবিতার মানসসত্ত্বার উত্তারাধিকারীÑ সর্বশেষ প্রকাশিত তার কবিতাবই ‘জলরঙে আঁকা ছবি’র ভেতর দিয়ে তা বেশ দৃঢ়তার সঙ্গে জানান দিয়েছেন। তার কবিতায় যেমন বিপ্লব আছে, প্রতিবাদ আছে, বাঙালি ও মানবিক চেতনাবোধ আছে তেমনি মানবিক প্রেম আবার প্রেম-দ্রোহও রয়েছে। একই সঙ্গে তার কণ্ঠে উচ্চারিত হয়েছে আমাদের জাতীয় আশা ও হতাশার কথাও।

রোববার সন্ধ্যায় সিলেট নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে কবি বদরুজ্জামান জামানের কবিতাবই ‘জলরঙে আঁকা ছবি’র প্রকাশনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। রাগিব রাবেয়া ডিগ্রি কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও দৈনিক শুভ প্রতিদিনের সাহিত্য সম্পাদক-কবি খালেদ উদ-দীনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কবি-গবেষক ও মদনমোহন কলেজের অধ্যক্ষ ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ বলেন, কবিতার চেনা জগতে বিচরণ করছেন বদরুজ্জামান জামান। কিন্তু এখান থেকেও তাকে আলাদা করে চেনা যায়। কেননা তাকে আলাদা করবার মত অনেক উপকরণ বিদ্যমান রয়েছে তার কবিতায়। তিনি সহজ ও স্বাভাবিক ভঙ্গিমায় কবিতার শব্দগুলোকে পাঠকের একান্ত নিজস্ব করে তুলেছেন। বৈঠকখানার মত একটি পরিবেশ তৈরি করে তার পাঠককে শব্দ ও ভাবের ভেতরে আপ্লুত করেছেন। বিমোহিত করেছেন।

মূল প্রবন্ধে কবি-কথাশিল্পি ও দৈনিক শুভ প্রতিদিনের বার্তা সম্পাদক সালমান ফরিদ বলেন, কবি বদরুজ্জামান জামানকে পাঠ করলে তাকে যে দর্শন দিয়ে আলাদা করা যায় তার একটি হচ্ছেÑ কবির মানসসত্ত্বা। এই মানসসত্ত্বায় আছে ভাবের প্রাণোচ্ছলতা। এর কারণে তার কবিতার গায়ে ও গতরে ভাবের গভীরতা বিদ্যমান।

লেখক-সাংবাদিক মিলু কাশেমের সভাপতিত্বে প্রকাশনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কবি-অধ্যাপক নৃপেন্দ্রলাল দাশ বলেন, একজন ফ্রান্স প্রবাসি কবি হিসেবে তার কবিতায় দুই দেশের সংস্কৃতি-ভাবনা ফুটে উঠেছে। তিনি প্রবাসে থেকে কেমন বাংলাদেশ প্রত্যাশা করেন আর কেমন বাংলাদেশ দেখতে পান সেটি কাব্যের মহিমায় প্রাণবন্ত করে তুলেছেন।

কবি-সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এ কে শেরাম বলেন, ছন্দ-ব্যাকরণ ছাড়াও যে অনেক কবিতা সুখপাঠ্য হতে পারে কবি বদরুজ্জামানকে পাঠ করলে সেটি বোঝা যায়। তিনি যা দেখেছেন তাই কবিতার ভাষায় প্রকাশ করেছেন। একজন সমাজ-দায়বদ্ধ কবির সার্থকতা এখানেই।

দৈনিক উত্তরপূর্বের প্রধান সম্পাদক আজিজ আহমদ সেলিম বলেন, জলরঙে আঁকা ছবি কবিতাবই সিলেটের কবিতাঙ্গনে উল্লেখযোগ্য জায়গা করে নেবে। কারণ এতে মানুষের কথা আছে। দেশ ও দশের কথা আছে। প্রকৃতির কথা আছে। দ্রোহের কথা আছে।

বালাগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ও দৈনিক শুভ প্রতিদিনের প্রধান সম্পাদক কবি লিয়াকত শাহ ফরিদী বলেন, কবিতার সুষমায় বদরুজ্জামান যে শব্দের প্রয়াশ চালিয়েছেন সেখানে তিনি সফল। তার মাঝে পাঠক যা চা তা দেবার ক্ষমতা রয়েছে। এবং তিনি তা দিয়েছেন।

কবি পুলিন রায়, কবি ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শামসুল আলম সেলিম, কবি আবিদ অনুষ্ঠানে সিলেটের বিশিষ্ট কবি ও লেখকরা আলোচনায় অংশ নেন। ফায়সালসহ লেখক অনুভূতি ব্যক্ত করেন কবি বদরুজ্জামান জামান।

শেয়ার করুন