সুনামগঞ্জে স্বাধীন বাংলার প্রথম পতাকা উত্তোলনকারী সুজাত চৌধুরীর ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী বুধবার

সিলেটের সকাল রিপোর্ট:সুনামগঞ্জে স্বাধীন বাংলার প্রথম পতাকা উত্তোলনকারী, সুনামগঞ্জ ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও দিরাই ডিগ্রী কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা সুজাত আহমেদ চৌধুরীর ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী বুধবার। ২০০৭ সালের এই দিনে (২৮ মার্চ) তিনি আকষ্মিক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।
গণমানুষের প্রিয় নেতা সুজাত আহমেদ চৌধুরী ১৯৪৭ সালের ৭ জানুয়ারী সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার তাড়ল গ্রামে সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মামদ চৌধুরী ছিলেন এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তি। তাঁর মায়ের নাম আলতাজান চৌধুরী। নিজ গ্রামে প্রাথমিক শিক্ষা শেষে তিনি দিরাই উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৬৬ সালে মাধ্যমিক শিক্ষা সম্পন্ন করেন। ১৯৬৭ সালে তিনি সুনামগঞ্জ কলেজে ভর্তি হন। সেই সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পতাকা কাঁধে তুলে নেন। ঝাপিয়ে পড়েন ঐতিহাসিক ৬ দফা আন্দোলনে। ১৯৬৯ সালে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের নেতা হিসেবে বঙ্গবন্ধুর মুক্তি আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন। ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের পক্ষে কাজ করেন। ১৯৭১ সালের ৩ মার্চ তিনি সর্বপ্রথম সুনামগঞ্জে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীন বাংলার পতাকা উত্তোলন করেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন তিনি। স্বাধীনতা উত্তর তিনি ¯œাতক ডিগ্রী অর্জন করেন। দিরাই ডিগ্রী কলেজ ও তাড়ল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা তিনি। সামাজিক কর্মকান্ডে তাঁর অসামান্য অবদান রয়েছে। অন্যায়ের কাছে আপোষহীন সুজাত আহমেদ চৌধুরী স্থানীয় ও জাতীয় সংবাদপত্রে নিয়মিত কলাম লিখতেন। তাঁর লেখা ১১ টি গ্রন্থে প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে ‘রাজনীতির তিন যুগ’, ‘বিশ^ এবং বিবিধ প্রসঙ্গ’, ‘শতাব্দীর প্রথম যুদ্ধ’, ‘হৃদয়ে বাংলাদেশ’ উল্লেখযোগ্য।
এদিকে তাঁর ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গ্রামের বাড়ীতে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। তাঁর ভাতিজা দৈনিক সিলেটের ডাক’র সিনিয়র রিপোর্টার কাউসার চৌধুরী তাঁর চাচার রূহের মাগফেরাত কামনায় সকলের নিকট দোয়া কামনা করেছেন।

শেয়ার করুন