আগুনে পুড়ে ছাই মিরপুর বস্তির ৫ হাজার ঘর

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: আগুনে মিরপুর ১২ নম্বরের বস্তির ৫ হাজার ঘর পুড়ে ছাই হয়েছে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ইলিয়াস আলী মোল্লা। তিনি জানান, বস্তির প্রায় সব ঘর আগুনে পুড়ে গেছে। এসব ঘরে প্রায় ২৫ হাজারের বেশি মানুষ থাকতো। আগুন লাগার কারণ এখনও জানা যায়নি।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মিরপুর ১২ নম্বরের প্রায় ৭ বিঘা জমির ওপর চারটি বস্তিটি ছিল। এগুলো হলো, হারুনাবাদ, কবির মোল্লা, সাত্তার মোল্লা ও নাগর আলী মাতব্বর বস্তি। মূলত এমপি ইলিয়াস মোল্লার বাবা-চাচাদের জমিতে ৭৬ সাল থেকে এই বস্তি গড়ে ওঠে। ৩৫ বছরের পুরনো এ চার বস্তিতে ৫০০০ হাজার ঘর ছিল। এখানে ২৫ হাজারের বেশি মানুষ বাস করতো।

ইলিয়াস মোল্লা বলেন, ‘আমার একটি নির্মাণাধীন মার্কেটের সাতটি ফ্লোরে যাদের ঘর পুড়েছে তাদের থাকার ব্যবস্থা করেছি। যতক্ষণ পর্যন্ত না তাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে ততক্ষণ তারা এখানে থাকবে। আমি তাদের খাবারের ব্যবস্থাও করবো।’

ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান বলেন, রোববার দিবাগত রাত ৪টার দিকে আগুন লাগে ইলিয়াস আলী বস্তিতে। আগুন লাগার পর মুহূর্তের মধ্যে তা ছড়িয়ে পড়ে গোটা বস্তিতে। বস্তির বেশিরভাগ লোক গার্মেন্টে কাজ করে। তাই প্রায় সবার ঘরেই ঝুট এবং প্রচুর পরিমাণে দাহ্য বস্তু ছিল। ফলে আগুন খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। ফায়ার সার্ভিসের ২১টি ইউনিট কাজ করে সোমবার সকাল ৭টা ২২ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

শেয়ার করুন