‘শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকে দুর্বলতা ভাববেন না’

জেলা ও মহানগর বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেছেন- তিন বারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া এদেশের মুক্তিকামী জনতার আশা আকাঙ্খার শেষ ভরসাস্থল। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনের আপোষহীন নেত্রী বিএনপি চেয়ারপার্স বেগম খালেদা জিয়াকে মাইনাস করে এদেশে আর কোন প্রহসনের ভোটারবিহীন নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে বিএনপির চলমান শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকে সরকারি যদি দুর্বলতা মনে করে তাহলে তারা বোকার স্বর্গে বসবাস করছে। আমাদের আন্দোলনে মানুষের স্বত:স্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখে সরকারের পায়ের নিচের মাটি সরে গেছে। সময় থাকতে সরকারের শুভ বুদ্ধির উদয় না হলে তাদেরকে ইতিহাসের নির্মম ও ন্যাক্কারজন পরিণতি বরনের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে বলে তারা হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করেন।
মঙ্গলবার বিকেলে বিএনপি কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসুচীর অংশ হিসেবে বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, দেশনায়ক তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় সাজা, বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবীতে নগরীর রেজিস্ট্রারী মাঠে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন। সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে জেলা ও মহানগর বিএনপি ছাড়াও অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।
বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট জেলা সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীমের সভাপতিত্বে ও মহানগর সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিমের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা আলহাজ্ব এম.এ হক।
বিএনপি নেতা শাহ মো: এহিয়ার পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে সূচিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, বিএনপির কেন্দ্রীয় সিলেট বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম, বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-ক্ষুদ্র ঋণ বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, জেলা সহ-সভাপতি আব্দুল মান্নান, মহানগর সহ-সভাপতি সালেহ আহমদ খসরু, সহ-সভাপতি কাউন্সিলার ফরহাদ চৌধুরী শামীম, সহ-সভাপতি জিয়াউল গনি আরেফিন জিল্লুর, সহ-সভাপতি সুদীপ রঞ্জন সেন, সহ-সভাপতি অধ্যাপিকা সামিয়া বেগম চৌধুরী, জেলা উপদেষ্ঠা আফরোজ মিয়া চেয়ারম্যান, জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়সল, মহানগর সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত্ চৌধুরী সাদেক, জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশীদ মামুন, মহানগর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শামীম সিদ্দীকি, এমদাদ হোসেন চৌধুরী, এডভোকেট আতিকুর রহমান সাবু, হুমায়ুন আহমদ মাসুক, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান আহমদ চৌধুরী, এডভোকেট হাসান আহমদ পাটোয়ারী রিপন, আবুল কাশেম ও শামীম আহমদ, জেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা কাউন্সিলার সালেহা কবির শেপী, মহানগর মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা নিগার সুলতানা ডেইজী ও জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সাঈদ আহমদ। বিজ্ঞপ্তি-

শেয়ার করুন