‘বাক্ শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের অবহেলিত রেখে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়’

সিলেটে বাংলা  ইশারা ভাষা দিবস পালিত

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সিলেট বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ের পরিচালক সৈয়দা ফেরদাউস আক্তার বলেছেন, ‘মানব সভ্যতার মধ্যে ইশারা ভাষা পুরনো, প্রাক যুগে মনের ভাব প্রকাশ করা হতো এ ভাষায়। প্রতিবন্ধকতার জন্য ইশারা ভাষায় মনের ভাব প্রকাশ করা হয়। দেশে বর্তমানে ২.৬ % লোক বাক শ্রবণ প্রতিবন্ধী। এদের জন্য সমাজ সেবা বিভাগের আওতায় সারা দেশে ৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ঢাকায় ১ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে। যা যথেষ্ট নয়।’

বুধবার সকালে সমাজসেবা অধিদপ্তর সিলেট জেলা কার্যালয়ের উদ্যোগে বাংলা ইশারা ভাষা দিবসের আলোচনা সভা এবং জেলা সমাজ কল্যাণ পরিষদের ৫ লাখ ৪৫ হাজার টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন- ‘বাক্ শ্রবণ প্রতিবন্ধীরা মেধাবী, কর্মঠ । তারা কাজ করে নিপুণ ভাবে। তাদের কর্মমুখি শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তোলার বিকল্প নেই। এদের অবহেলিত রেখে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। সরকার অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলার স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এজন্য আমাদের সবাইকে কাজ করতে হবে । সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করাই বর্তমান সরকারের ভিশন।

সিলেট জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক নিবাস রঞ্জন দাশের সভাপতিত্বে ও সামাজিক প্রতিবন্ধী মেয়েদের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক লুৎফুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক দেবজিৎ সিংহ, সাবেক সংসদ সদস্য ও জাতীয় সমাজ কল্যাণ পরিষদের নির্বাহী কমিটির সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, সাবেক কাউন্সিলর বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক, সি এস আইডির প্রকল্প সমন্বয়কারী খ ম আবেদ উল্লাহ, গ্রীণ ডিজএ্যাবল্ড ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ডিজি রুমো।

বক্তব্য রাখেন-সিলাম সুরমা সমাজ কল্যাণ সংঘের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক সিলেটের ডাক এর সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার হাজী এম আহমদ আলী, বাসস এর সিলেট ব্যুরো প্রধান মকসুদ আহমদ মকসুদ, ফটো সাংবাদিক দুলাল হোসেন, এম সারওয়ার হোসেন সৌরভ, প্রতিবন্ধী নাগরিক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মাসুম আহমদ, নর্থ ইস্ট সার্ভিসেস টিমের নির্বাহী পরিচালক দেলওয়ার হোসেন, সিলেট বধির সংঘের সাধারণ সম্পাদক মিনহাজ উদ্দিন খান, টুকের বাজার বধির সংঘের সভাপতি মোহাম্মদ আজিম প্রমুখ।

ইশারা ভাষা উপস্থাপন করে শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন সিলেট ইনস্কুসিভ স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক মাসুক আলম। গীতা পাঠ করেন সিলেট ইনস্কুসিভ স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক সঞ্জীব চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দুস্থ রোগী ও ব্যক্তিদের মধ্যে অনুদানের চেক বিতরণ করা হয়। এর আগে ‘ইশারা ভাষা উন্নয়নে, এগিযে যাব প্রতিজনে’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে এক বর্ণ্যাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়।

শেয়ার করুন