আব্দুল হাই আল-হাদী’র গ্রন্থ ‘লালেং ক্যানভাস’ ও ‘সিলেটের প্রত্নসম্পদ’ এর মোড়ক উন্মোচিত

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: প্রথম আলো বন্ধুসভার আয়োজনে সিলেট বইমেলার ৬ষ্ঠ দিনে উন্মোচিত হলো গবেষক আব্দুল হাই আল-হাদীর বই ‘লালেং ক্যানভাস’ ও ‘সিলেটের প্রত্নসম্পদ’ এর মোড়ক। মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের মুক্তমঞ্চে অনুষ্ঠিত এ মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এ এফ এম জাকারিয়া এবং সিলেট কমার্স কলেজের অধ্যক্ষ ও লেখক ড. মোস্তাক আহমদ দীন।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শ্রীহট্ট প্রকাশের প্রকাশক জীবলু রহমান ও বইয়ের লেখক আব্দুল হাই আল-হাদী ।

‘লালেং ক্যানভাস’ও এর প্রধান আলোচক এ এফ এম জাকারিয়া বলেন, সিলেটের যে আদিবাসী সম্প্রদায়কে পাত্রসম্প্রদায় হিসেবে সবাই জানেন, তারাই নিজেদেরকে লালেং হিসেবে পরিচয় দেন আর সেই লালেং সম্প্রদায়ের মানুষদেও ইতিহাস-ঐতিহ্য-ভাষা-সংস্কৃতিই উঠে এসেছে আব্দুল হাই আল-হাদীর বই লালেং ক্যানভাসে।
সিলেটের প্রতœসম্পদ বইয়ের আলোচনায় লেখক মোস্তাক আহমদ দীন বলেন, সিলেটের ইতিহাস ও ঐতিহ্যেও অনুদঘাটিত যে দিকগুলো রয়েছে, সেগুলো ছড়িয়ে আছে সিলেটের সর্বত্র। আর এ সকল ঐতিহাসিক নিদর্শন ও স্থাপনার বর্ণনা প্রাঞ্জলভাষায় উঠে এসেছে এ বইয়ে।

সঞ্জয়কুমার নাথের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন শাবিপ্রবির পুরকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. জহির বিন আলম, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম, এথনিক কমিউনিটি ডেভেলপমেন্টের নির্বাহী পরিচালক লক্ষ্মীকান্ত সিংহ, সিলেট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ, লোকসঙ্গীত শিল্পী শামীম আহমেদ, ইমরান আহমদ মহিলা কলেজর সহকারি অধ্যাপক মো. খায়রুল ইসলাম, সাংবাদিক ও উপাধ্যক্ষ সাহেদ আহমদ, জৈন্তাপুরের চারিকাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহআলম চৌধুরী, সিলেটের দিনরাতের সম্পাদক মুজিবুর রহমান ডালিম, মাহবুব উল আলম, ফয়েজ আহমদ, নুরুল ইসলাম প্রমূখ।

নৃতাত্ত্বিক ও প্রতœতাত্ত্বিক গবেষক আব্দুল হাই আল-হাদী নৃবিজ্ঞান বিষয়ে এমফিল ডিগ্রী অর্জনের সময় থেকেই পুরোপুরি আত্মনিবেশ করেছেন সিলেটের ইতিহাস, ঐতিহ্য, প্রতœসম্পদ ও আদিবাসীদের জীবনযাত্রা গবেষণায়।

মোড়ক উন্মোচিত হওয়া বই ‘লালেং ক্যানভাস’ প্রকাশ করেছে শ্রীহট্ট প্রকাশ এবং ‘সিলেটের প্রতœসম্পদ’ প্রকাশ করেছে চৈতন্য প্রকাশন।

শেয়ার করুন