২৮ দিন পর অপহরণকারীরা ফিরিয়ে দিল মাধবপুরের মাঈনকে

মাধবপুর সংবাদদাতা :: অপহরণের ২৮দিন পর অপহরণকারীর আস্তানা থেকে ফিরে এসেছে কিশোর মাঈনউদ্দিন। ঘটনাটি ঘটেছে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার সন্তোষপুর গ্রামে।

পুলিশ জানায়, গত ৩০ ডিসেম্বর উপজেলার উত্তর সন্তোষপুর গ্রামের ভুট্টো মিয়ার পুত্র কিশোর মাঈন উদ্দিন মাধবপুর সদরে আসার পথে জদগীশপুর এলাকার মুক্তিযোদ্ধা চত্বর এলাকায় এসে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিল। তখন ঢাকাগামী কাল রংয়ের একটি হাইয়েস গাড়ি সেখানে দাঁড় করিয়ে তাকে কৌশলে গাড়িতে তুলে অজ্ঞান করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে একটি অন্ধকার ঘরে বন্দি করে রাখে। ২৮দিন তাকে একই ঘরেই রাখা হয়। গত শুক্রবার রাত ১০টার দিকে মাধবপুর উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে বেলঘর নামক স্থানে অপহরণকারীরা কাল একটি গাড়ি থেকে ফেলে যায়।

থানায় কিশোর মাঈন উদ্দিন জানায়, গাড়িতে উঠার পরেই তাকে অজ্ঞান করা হয়। এরপর অজ্ঞাত স্থানে তাকে অন্ধকার কক্ষে রেখে শুধু দু’বেলা খাবার দিত। কখনো রুটি আবার কখনো ভাত দিত। ঘরটি এমন অন্ধকার ছিল দিন না-কি রাত বুঝা যেত না। অপহরণকারীরা আমার বাবার কেমন টাকা পয়সা আছে তা জানতে চেয়েছে।

এসআই কমলা কান্ত মালাকার জানান, ধারণা করা হচ্ছে দরিদ্র হওয়ার কারণে অপহরণকারী চক্র তাকে আবার ফিরিয়ে দিয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে অন্ধকার ঘরে বন্দি থাকার কারণে মানসিক ও শারীরিকভাবে মাঈন উদ্দিন অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তাকে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

তার পিতা ভুট্টো মিয়া জানান, গত ৩০ ডিসেম্বর থেকে মাঈন উদ্দিনকে খোঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। এ ঘটনায় ৩১ ডিসেম্বর মাধবপুর থানায় একটি জিডি করা হয়।

মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানান, মাঈন উদ্দিন নিখোঁজ হওয়ার পর সারাদেশে বেতার বার্তা পাঠানো হয়। পুলিশ তাকে উদ্ধারে তৎপর ছিল।

ধারণা করা হচ্ছে, পুলিশের সক্রিয়তার কারণে অপহরণকারী তাকে ফেরত দিয়েছে।

শেয়ার করুন