সুনামগঞ্জের বিভিন্ন হাওর পরিদর্শনে পানিসম্পদমন্ত্রী

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন হাওর পরিদর্শন করেছেন পানিসম্পদ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু। শনিবার স্পীডবোটযোগে মন্ত্রী সেখানকার পাগনার হাওর, গজারিয়া ক্লোজার, হালির হাওরের লক্ষ¥ীপুর ক্লোজার, ধর্মপাশা উপজেলার ধানকুনিয়া হাওরের মুহিনিপুরের ঢালা, সদর উপজেলার জোয়াল ভাঙ্গা হাওরের নিয়ামতপুর বাঁধ, বিশম্ভরপুর উপজেলার হালির হাওরের কোপা গাঙ পরিদর্শন করেন।
হাওর পরিদর্শনের সময় হাওরপাড়ের কৃষকদের সাথে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী বলেন, বর্ষাকালে হাওরে যে পানি আসে তা থেকে সৃষ্ট বন্যায় ফসল নষ্ট হয়। মানুষের ভোগান্তি হয়। সুনামগঞ্জের ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ চলছে। ইনশাল্লাহ এবার ফসল রক্ষা হবে। আমি কাজটি মন্ত্রণালয়ে বসেও করতে পারতাম। এখানে নিজে আসলাম কৃষকদের কাছ থেকে সমস্যাটি জানার জন্য। কেন ফসল নষ্ট হয়, পানি কোথা থেকে আসে। বাঁধ নির্মাণ কাজের কি অগ্রগতি হয়েছে-সবই জানতে এসেছি আপনাদের কাছ থেকে।
তিনি আরো বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগের উপর আমাদের হাত নেই। দুর্যোগ দুর্বিপাক আসে প্রাকৃতিক নিয়মে। তবে এই দুর্যোগ থেকে আমাদের বাঁচার চেষ্টা থাকতে হবে। গত বছরও হঠাৎ করে প্রাকৃতিক দুর্যোগে সুনাগঞ্জের ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। তাই আমাদেরকে এবার সেভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বাঁধ নির্মাণের জন্য ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। তাই বাঁধের কাজ করতে হবে সুষ্ঠুভাবে এবং নির্ধারিত সময়ের মধ্যে।
হাওর পরিদর্শনকালে তার সফর সঙ্গী ছিলেন সিলেট-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. ইয়াহইয়া চৌধুরী, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান, অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ ইউসুফ, পানি উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কেএম আনোয়ার হোসেন, ইত্তেফাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, সিলেট বিভাগের স্থানীয় সরকারের পরিচালক মো. মতিউর রহমান, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এমরান হোসেন, পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. কামরুজ্জামান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বক্কর সিদ্দিক, জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামীম আল ইমরান, আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মোহাম্মাদ আলী, ইউপি চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু তালুকদার, সাবেক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মিছবাহ উদ্দিন, বেহেলী ইউপি চেয়ারম্যান অসীম চন্দ্র তালুকদার, আওয়ামী লীগ নেতা আসাদ আল আজাদ, জেলা যুবলীগের সদস্য আবুল আজাদ, উপজেলা যুবলীগ আহ্বায়ক আবুল খয়ের, সদর ইউপি যুবলীগের সভাপতি শিরিন তালুকদার প্রমুখ।
পানিসম্পদ মন্ত্রী হাওরের বাঁধের কাজ পরিদর্শন শেষে বিকালে সুনামগঞ্জ সার্কিট হাউজে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা, প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন।
সূত্র জানায়, বৈঠকে সুনামগঞ্জ এলাকার হাওরসহ বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে কথা হয়। বৈঠকে হাওর সমস্যা গুরুত্ব পায় এবং সমস্যা সমাধান লক্ষ্যে তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ হিসেবে ৫৩ কোটি টাকার একটি পৃথক প্রাক্কলন তৈরির বিষয়ে আলোচনা হয়।
বৈঠকে সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান মিসবাহসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন