গোয়াইনঘাটের মোহাম্মদপুরে মসজিদ নির্মাণ করে দিলেন প্রবাসী এম এ আহাদ

বক্তব্য রাখছেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী কমিউনিটি নেতা আলহাজ্ব এম এ আহাদ

ডেস্ক রিপোর্ট ॥ গোয়াইনঘাটের ডৌবাড়ি ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামে মসজিদ নির্মাণ করে দিয়েছেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী কমিউনিটি নেতা এবং জগন্নাথপুর বৃটিশ-বাংলা এডুকেশন ট্রাস্টের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এম এ আহাদ। তাঁর মরহুম পিতা আইনুদ্দিন ও মাতা আস্তুরা বিবি’র নামে মসজিদটির নামকরণ করা হয়েছে। শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে মসজিদটির উদ্বোধন করা হয়। ২৮শ’ বর্গফুটের এ মসজিদে প্রায় ৫ শতাধিক মুসল্লী এক সাথে নামাজ আদায় করতে পারবেন।
এদিকে, আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন উপলক্ষে মসজিদ প্রাঙ্গণে গতকাল শনিবার বাদ যোহর এক দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। দোয়া মাহফিলের পূর্বে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। মোহাম্মদপুর গ্রামের বাসিন্দা এবং নগরীর পাঠানটুলা মসজিদের ইমাম মাওলানা হোসাইন আহমদের পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন- প্রবাসী আলহাজ্ব এম এ আহাদ, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. আতি উল্যাহ, এশাআতুল উলুম দারুল হাদীস ফতেহপুর মাদ্রাসার মুহতামিম আলহাজ্ব মাওলানা আব্দুস সামাদ এবং সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম।
ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন, সিলেট-এর লন্ডন চ্যাপ্টারের সভাপতি আলহাজ্ব এম এ আহাদ বলেন, সম্পূর্ণ ছওয়াবের নিয়তে আমি মসজিদটি প্রতিষ্ঠা করেছি। তিনি বলেন, ধন সম্পদের সুষ্ঠু বণ্টনের ওপর প্রকৃত কল্যাণ নিহিত। তিনি ও তাঁর পরিবারবর্গের জন্য মোনাজাত করতে তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

গোয়াইনঘাটের মোহাম্মদপুর গ্রামে মসজিদ উদ্বোধন উপলক্ষে মোনাজাত করা হচ্ছে

প্রফেসর ড. আতি উল্যাহ বলেন, মসজিদ আল্লাহর ঘর। মসজিদ নির্মাণের চেয়ে উত্তম কাজ আর কিছুই হতে পারে না। মসজিদটি নির্মাণ করে দেয়ায় তিনি এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে আলহাজ্ব এম এ আহাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-যুক্তরাজ্য প্রবাসী ও ডৌবাড়ি গ্রামের কৃতি সন্তান শাব্বির হোসাইন, পূবালী ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা সৈয়দ হেমায়েত, রুহেল খন্দকার, ফয়জুর রহমান শিকদার ও আব্দুর রউফসহ গ্রামের শতাধিক লোক।
পরে মোনাজাত পরিচালনা করেন- আলহাজ্ব মাওলানা আব্দুস সামাদ। মোনাজাতশেষে শিরণী বিতরণ করা হয়।

শেয়ার করুন