সাংবাদিক-রাজনীতিবিদ মকবুল হোসেন চৌধুরীর ৬০তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: আজ ২০ ডিসেম্বর বুধবার অবিভক্ত আসাম-বাংলার বিশিষ্ট সাংবাদিক, সাহিত্যিক, রাজনীতিবিদ, খেলাফত আন্দোলন নেতা, ভাষাসৈনিক এবং সমাজসেবক মরহুম মকবুল হোসেন চৌধূরীর ৬০তম মৃত্যুবার্ষিকী।

ঐতিহ্যবাহী সিলেট কেন্দ্রিয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা মকবুল হোসেন চৌধুরী ১৯৩৭ সালে আসাম ব্যবস্থাপক সভার সদস্য (এম এল এ) নির্বাচিত হন। তিনি পরিষদের হুইপ ছিলেন। তিনি ১৯২০ সালে নাগপুরে অনুষ্ঠিত সর্বভারতীয় কংগ্রেস সম্মেলনে সুরমা উপত্যকা প্রতিনিধিদলের একজন সদস্য ছিলেন। সরকারবিরোধী বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে ব্রিটিশরাজ তাঁকে দু’বছর কারারুদ্ধ করে রাখে। কিছুদিনের জন্যে তিনি ই-িয়ান জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিভাগের যুগ্ম সম্পাদকের দার্য়িত্ব পালন করেন।

মকুবল হোসেন চৌধুরী ছিলেন বাংলাদেশের অন্যতম প্রাচীন পত্রিকা সিলেটের ‘যুগভেরী’র (১৯৩২) প্রথম সম্পাদক। এর আগে তিনি সিলেটের ‘যুগবাণী’ (১৯২৫) ও কলকাতার দৈনিক ‘ছোলতান’ (১৯৩০)-এর সম্পাদক ছিলেন। পরবর্তীকালে তিনি ‘সিলেট পত্রিকা’ (১৯৫৭) সম্পাদনা করেন। সম্প্রতি বিশিষ্ট সাংবাদিক ও মুক্তিযোদ্ধা সালেহ চৌধুরীর সম্পাদনায় ’কালের দর্পণে সাংবাদিক-রাজনীতিবিদ মকবুল হোসেন চৌধুরী’ শীর্ষক একটি পুস্তক প্রকাশিত হয়েছে।

মকবুল হোসেন চৌধুরীর স্ত্রী বেগম শফিকুন্নেসা চৌধুরী, বড় ছেলে ফারুক চৌধুরী, বড় ও মেঝো মেয়ে রোকেয়া সামাদ ও আসিয়া চৌধুরী ইতিমধ্যেই ইন্তেকাল করেছেন। তাঁর মেঝো ছেলে হোসেন তওফিক চৌধুরী আইনজীবী ও কলামিস্ট, ছোট ছেলে বিশিষ্ট সাংবাদিক হাসান শাহরিয়ার কমনওয়েলথ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনে (সিজেএ)-এর ইন্টারন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট ইমেরিটাস এবং ছোট মেয়ে আসমা হুমায়েরা চৌধুরী গৃহবধু ।

মরহুমের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আজ ঢাকা, সিলেট ও সুনামগঞ্জে কোরানখানি ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন