চ্যাম্পিয়নস লিগ: অ্যাতলেতিকোর বিদায়, নকআউটে ম্যানইউ-জুভেন্টাস

স্পোর্টস ডেস্ক :: চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিতে হলো অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদকে। ২০১৪ ও ২০১৬ সালের রানার্সআপরা গ্রুপের শেষ ম্যাচ ড্র করেছে চেলসির মাঠে। ১-১ গোলের এই ড্রয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ হারালো চেলসি। নকআউটে  বার্সেলোনা বা পিএসজির বিপক্ষে কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে ইংলিশ চ্যাম্পিয়নদের। মঙ্গলবার গ্রুপের শেষ ম্যাচ জিতে চেলসি ছাড়াও নকআউট নিশ্চিত করেছে জুভেন্টাস, রোমা ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে সাউল নিগুয়েজের গোলে ৫৬ মিনিটে এগিয়ে গিয়েছিল অ্যাতলেতিকো। তবে লিডটা ধরে রাখতে পারেনি তারা। ৭৫ মিনিটে ইডেন হ্যাজার্ডের মাটি কামড়ানো শট ঠেকাতে গিয়ে সাভিচের আত্মঘাতী গোলে ড্র করতে হয় স্প্যানিশ জায়ান্টদের। এতে ৬ ম্যাচে মাত্র ৭ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ পেরোনো হলো না তাদের, অবশ্য তৃতীয় স্থানে থাকায় খেলবে ইউরোপা লিগে

এদিকে এই ড্রয়ের কারণে ‘সি’ গ্রুপের শীর্ষস্থান রোমার কাছে হারালো চেলসি। দিয়েগো পেরোত্তির গোলে কারাবাগকে ১-০ তে হারিয়ে ইংলিশ চ্যাম্পিয়নদের সমান ১১ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের সেরা রোমা। গোলব্যবধানে পিছিয়ে থেকে চেলসি হলো গ্রুপের রানার্সআপ।

আগের ম্যাচে ‘ডি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলোতে খেলা নিশ্চিত করেছিল বার্সেলোনা। স্পোর্তিং সিপির বিপক্ষে আনুষ্ঠানিকতা রক্ষার ম্যাচে তাই লিওনেল মেসিকে বেঞ্চে রেখেছিলেন এরনেস্তো ভালভারদে। এনিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে টানা দুই ম্যাচে একাদশে ছিলেন না আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। ৬১ মিনিটে তিনি বদলি মাঠে নামেন।তার দুই মিনিট আগে পাকো আলকাসে এগিয়ে দেন স্বাগতিকদের। দ্বিতীয়ার্ধের ইনজুরি সময়ে জেরেমি ম্যাথিউর আত্মঘাতী গোলে ২-০ তে জিতে গ্রুপ পর্বের লড়াই শেষ করে বার্সেলোনা। ৬ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট তাদের।

গ্রুপ বাধা পেরোতে অলিম্পিয়াকোসের বিপক্ষে জিততেই হবে, এই সমীকরণ মাথায় রেখে গ্রিসে গিয়েছিল জুভেন্টাস। তারা সফল হয়েছে নকআউটে যেতে। ২-০ গোলে জিতেছে ইতালিয়ান জায়ান্টরা। ১৫ মিনিটে কুয়াদরাদোর গোলে এগিয়ে যায় জুভেন্টাস। বের্নার্ডেসি ৮৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। ৬ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে নকআউটে উঠলো জুভেন্টাস। ৭ পয়েন্ট নিয়ে ইউরোপা লিগের টিকিট কেটেছে স্পোর্তিং।

সব ধরনের প্রতিযোগিতায় টানা দ্বিতীয় ম্যাচ হারলো প্যারিস সেন্ত জার্মেই। লিগ ওয়ানে নবাগত স্ত্রাসবোর্গের কাছে তারা হেরেছিল শনিবার। তোলিসোর জোড়া গোলে দুইদিন পর চ্যাম্পিয়নস লিগেও তাদের মাটিতে নামালো সাবেক চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ। অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনায় ফ্রান্সের শীর্ষ দলকে ৩-১ গোলে হারালো ইয়ুপ হেইঙ্কেসের শিষ্যরা।

অবশ্য ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়েই শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে পিএসজি। তাদের সমান ১৫ পয়েন্ট পেলেও গোলব্যবধানে পিছিয়ে থেকে রানার্সআপ বায়ার্ন। গ্রুপের আরেক ম্যাচে অ্যান্ডারলেখট একমাত্র জয়ে শেষ করেছে ইউরোপের শীর্ষ প্রতিযোগিতা। হেরে গেলেও সেলটিক তিন নম্বরে থেকে ইউরোপা লিগ নিশ্চিত করেছে।

‘এ’ গ্রুপে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ২-১ গোলের ঘুরে দাঁড়ানো জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। বিরতিতে যাওয়ার কিছুক্ষণ আগে ভিতিনয়োর লক্ষ্যভেদে এগিয়ে যায় সিএসকেএ মস্কো। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে মাত্র দুই মিনিটের ব্যবধানে রুশ দলের জালে দুইবার বল পাঠায় ম্যানইউ। রোমেলু লুকাকু ৬৪ মিনিটে সমতা ফেরান। মার্কুস রাশফোর্ডের ৬৬ মিনিটের গোল স্বস্তি ফেরায় স্বাগতিক গ্যালারিতে।

৬ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে থেকে নকআউট পর্বে ম্যানইউ। বেনফিকাকে ২-০ গোলে হারিয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে শেষ ষোলোতে ইউনাইটেডের সঙ্গী বাসেল। সিএসকেএ খেলবে ইউরোপা লিগে।

শেয়ার করুন