২৩ শর্তে বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে রবিবার সমাবেশ করার অনুমতি পেয়েছে বিএনপি। ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) তাদের সমাবেশ করার অনুমতি দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন দলটির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী।

সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশের অনুমতি চেয়ে করা আবেদনের বিষয়ে জানতে সকালে ডিএমপির কার্যালয়ে যান এ্যানী এবং দলটির প্রশিক্ষণবিষয়ক সম্পাদক মোশাররফ হোসেন। পরে ডিএমপির পক্ষ থেকে তাদের সমাবেশের অনুমতি দেয়া হয়। পরে অনুমতিপত্র নিয়ে তারা দলীয় কার্যালয়ে যান।

বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালনের জন্য ৮ নভেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি চেয়েছিল বিএনপি। কিন্তু ওইদিন সমাবেশের অনুমতি পায়নি দলটি। পরে ১২ নভেম্বর সমাবেশের অনুমতি চেয়ে আবেদন করে দলটি। আজ ডিএমপির পক্ষ থেকে অনুমতি দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হলো।

প্রায় ৪২ বছর আগে সেনাবাহিনীতে অভ্যুত্থান পাল্টা অভ্যুত্থানের এক পর্যায়ে ৭ নভেম্বর সেনাবাহিনীর সৈনিক এবং সাধারণ জনগণকে নিয়ে বিপ্লব করার চেষ্টা করে জাসদ। আর সেনাবাহিনীর একাংশের হাতে বন্দী জিয়াউর রহমানকেও মুক্ত করে তারা। কিন্তু এই চেষ্টার নিয়ন্ত্রণ পরে জাসদের হাতছাড়া হয়ে যায় এবং রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার কাছাকাছি চলে আসেন জিয়াউর রহমান।

এই দিনটিকে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস হিসেবে পালন করে বিএনপি। দলটি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকাকালে এদিন সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়। কিন্তু সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৭ সালে এই ছুটি বাতিল করা হয়। আর ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দিনটিকে পালন করে মুক্তিযোদ্ধা সৈনিক হত্যা দিবস হিসেবে।

গত কয়েক বছর ধরে ৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস হিসেবে পালনের জন্য সমাবেশের অনুমতি চেয়েও পাচ্ছে না বিএনপি। এবার প্রথমে ৮ নভেম্বর বুধবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করতে চেয়েছিল দলটি। কিন্তু একই সময় অন্য একটি সংগঠন সমাবেশের অনুমতি চেয়েছে জানিয়ে কাউকে সমাবেশের অনুমতি দেয়নি ডিএমপি।

পরে বারবার বিএনপির পক্ষ থেকে সমাবেশের অনুমতি পাওয়া নিয়ে আশাবাদের কথা বলা হয়। অবশেষে আজ সকালে তাদের সমাবেশ করার অনুমতি দেয় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ।

শেয়ার করুন