১৮ বছর বয়সে ব্রিটেনের কাউন্সিলর সিলেটি শরিফাহ

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: মাত্র ১৮ বছর বয়সে সিটি কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে বৃটেনে চমক সৃষ্টি করেছেন বাংলাদেশের সিলেটের মেয়ে শরিফাহ রহমান। শরিফাহর পৈতৃক বাড়ি সিলেটের সুনামগঞ্জে।

গত সপ্তাহে অনুষ্ঠিত নর্থ-ইস্ট ইংল্যান্ডের ডারলিংটন বার কাউন্সিলের উপ-নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হন তিনি।

লেবার পার্টির প্রার্থী হিসেবে ৪৪ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট পেয়ে স্থানীয় রেড হল এবং লিংফিলড ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত হয়েছেন শরিফাহ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী টোরি পার্টির জোনাথন ডালস্টন। অন্য প্রতিদ্বন্দ্বীরা হলেন- লিবারেল ডেমোক্রেটস দলের হ্যারি লংমুর (১১ ভোট), গ্রিন পার্টির মাইকেল ম্যাকটিমনি (২০ ভোট) এবং সাবেক ইউকিপ কর্মী স্বতন্ত্র প্রার্থী কেভিন ব্রা পেয়েছেন (৪৬ ভোট)।

নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর শরিফাহকে অভিনন্দন জানিয়েছেন স্থানীয় এমপি জেনি চাপম্যান ও এন্ড্রু গাইন। আর শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) তাকে অভিনন্দন জানান ব্রিটেনের প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপি রোশনারা আলী।

এত কম বয়সে রাজনীতিতে যুক্ত হওয়ার কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে শরিফাহ ব্রিটেনের দৈনিক গেজেট লাইভকে দেওয়া সাক্ষাতকারে জানান, অতীত অভিজ্ঞতা ও সংগ্রামের গল্পগুলোই তাকে রাজনীতিতে নিয়ে এসেছে।

কয়েক মাস আগে প্রকাশিত ‘এ’ লেভেল পরীক্ষার ফলাফলেও ঈর্ষণীয় সফলতা অর্জন করেন শরিফাহ।

উল্লেখ্য, শরিফাহ’র জন্ম ও বেড়ে ওঠা ডার্লিংটন শহরে। বাবা লোকমান খানের দেশের বাড়ি সিলেটের  সুনামগঞ্জ জেলার বরমরা গ্রামে। সাত ভাইবোনের মধ্যে শরিফাহ সবার ছোট।

শেয়ার করুন