হুজহু’র উদ্যোগ বাংলাদেশী কমিউনিটি অহংকার

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যে দিয়ে দশম বারের মতো লন্ডনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বৃটিশ বাংলাদেশী হুজহু’র জাকজমকপূর্ণ এওয়ার্ড ও প্রকাশনা অনুষ্ঠান। নিজ নিজ পেশায় অসাধারণ সাফল্যের স্বাক্ষর রেখে এগিয়ে চলছেন, এমন ছয়জন ব্রিটিশ বাংলাদেশিকে এওয়ার্ড দিয়ে সম্মানিত করেছে বৃটিশ বাংলাদেশী হুজহু।

৯ নভেম্বর বৃহস্পতিবার লন্ডনের অভিজাত ভেন্যু মেরিডিয়ান গ্রান্ডে ব্যতিক্রমধর্মী ‘বাংলা মিরর’ গ্রুপের এই প্রকাশনায় এবার সংযুক্ত হয়েছে ২৭৩ জন বৃটিশ বাংলাদেশীর সাফল্যগাঁথার কথা।

বৃটিশ বাংলাদেশী হুজহু যুক্তরাজ্যে বসবাসরত বংলাদেশীদের বিভিন্ন বিষয়ে উল্লেখযোগ্য অবদান ও উৎকর্ষের বিবরণ নিয়ে প্রকাশিত হয় প্রতি বছর। এ বছরও এর ব্যতিক্রম হয়নি। এবারের প্রকাশনায় সংযুক্ত হয়েছে নতুন নতুন প্রতিভার অবদানের কথা। নতুনত্ব সমৃদ্ধ করেছে এ প্রকাশনাকে। বৃটিশ-বাংলাদেশী তৃতীয় প্রজন্মকে যুক্ত করে হুজহু কলেবরে বৃদ্ধি পেয়েছে, আঙ্গিকেও শোভিত হয়েছে নতুনদের অবদানে।

হুজহু’র সফলতা পুরানো নতুনের সমন্বয়ের মধ্য দিয়ে এসেছে। ২০০৮ সালে বৃটিশ-বাংলাদেশীদের হুজহু যাত্রা শুরু করেছিলো কমিউনিটির গুণিজনদের উল্লেখযোগ্য অবদানের কথা লিপিবদ্ধ করে তাদের স্মরণীয় করে রাখার জন্য। হুজহু বিশ্বস্ততার সাথে সে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে বললেন হুজহু’র বিগত সময়ের ও এবারের এওর্য়াডপ্রাপ্তরা।

বৃটিশ বাংলাদেশী হুজহু থেকে সহজেই কমিউনিটির অবদানের বিষয়টি জানা যায়। বৃটেনে বাংলাদেশী কমিউনিটির প্রবীণ ও নবীনরা বৃটিশ কমিউনিটিতে যে ভূমিকা রেখে যাচ্ছেন তা সত্যি প্রশংসা করার মত বললেন আগত অতিথিরা ।

বৃটিশ বাংলাদেশী হুজহু এর প্রধান সম্পাদক আব্দুল করিম গণি বলেন, প্রথম থেকেই এই প্রকাশণা আমাদের কমিউনিটির নবীনদের উৎসাহ ও উদ্দীপনা জুগিয়ে আসছে। প্রবীণদের সাফল্যের কথার ভবিষ্যতে নবীনদের অবদান সুন্দরভাবে সংযোজিত হবে।

জনপ্রিয় উপস্থাপিকা নাদিয়া আলি ও ব্যারিস্টার আনোয়ার বাবুল এর পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন হুজহু সম্পাদক ব্যারিস্টার শাহাদাত করিম। এই আয়োজনের দীর্ঘ দশ বছরের পথচলা নিয়ে সূচনা বক্তব্য রাখেন ব্যারিস্টার আনোয়ার বাবুল মিয়া। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বৃটিশ এমপি, মেয়র, ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক’সহ মূলধারা ও কমিউনিটির বিভিন্ন স্তরের প্রভাবশালী নেতৃবৃন্দ।

এবারের এওয়ার্ডপ্রাপ্তরা হলেন সৈয়দ নাহাস পাশা, কাজী আরিফ, শাহিদা রহমান, ড. সানাওর চৌধুরী, মাহি মুকতি পিইচডি ও ওলি খান।

জমকালো এই আয়োজনে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বৃটিশ পার্লামেন্টের ইন্টারন্যাশনাল ডেভোলাপমেন্ট সিলেক্ট কমিটির সদস্য পাউলিন লাথাম ওবিই এমপি, লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশনার নাজমুল কাওনাইন, টাওয়ার হ্যামলেটস মেয়র জন বিগস, ব্রেন্ট মেয়র ভাগওয়ানজি চৌহান, ব্রেডফোর্ডশায়ার এর মেয়র সৈয়দ মুহিবুর রহমান এবং লন্ডন এসেম্বলীর সদস্য কিথ প্রিন্স।

অনুষ্ঠানে সৈয়দ নাহাস পাশার হাতে এওয়ার্ড তুলে দেন পাউলিন লাথাম ওবিই এমপি ও ফাহমিনা চৌধুরী, কাজী আরিফের হাতে এওয়ার্ড তুলে দেন টাওয়ার হ্যামলেটস মেয়র জন বিগস ও চ্যানেল এস এর প্রতিষ্ঠাতা মাহি ফেরদৌস জলিল, শাহিদা রহমান এর হাতে এওয়ার্ড তুলে দেন লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশনার নাজমুল কাওনাইন ও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর কান্ট্রি ম্যানেজার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, ড. সানাওর চৌধুরী এর হাতে এওয়ার্ড তুলে দেন ব্রেন্ট মেয়র ভাগওয়ানজি চৌহান ও ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের ফাইন্যান্স ডিরেক্টর মুনির আহমেদ, মাহি মুকতি পিইচডি এর হাতে এওয়ার্ড তুলে দেন ব্রেডফোর্ডশায়ার এর মেয়র সৈয়দ মুহিবুর রহমান ও মাহবুব এন্ড কোং এর মাহবুব মোর্শেদ, ওলি খান এর হাতে এওয়ার্ড তুলে দেন লন্ডন এসেম্বলীর সদস্য কিথ প্রিন্স ও কারমু আলী।

এই পুরো আয়োজনে মূল সহযোগিতায় ছিলো মেরিডিয়ান গ্র্যান্ড। মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিলো চ্যানেল এস, জি টেন ডিজাইন এন্ড প্রিন্ট, সুরমা গ্রুপ, বাংলা পোস্ট, ওনলি রেড, ইস্টার্ণ প্রাইড, ইমপ্রেস মিডিয়া ও ইউকে বিডি নিউজ। চ্যারিটি পার্টনার জাস্ট স্মাইল।

এছাড়া আরো সহযোগিতায় রয়েছে – বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, জেএমজি এয়ার কার্গো, এপেক্স একাউন্টেন্সি, মাহবুব এন্ড কো, ব্লুস্টোন ফাইন্যান্স, শাহ গ্লোবাল, কেনযা ক্রিয়েশন, বিডিজিএল, ইউকে জুয়েলার্স গ্রুপ, জেনারেল অটো, ইউরোশিয়া ফুড সার্ভিস, হোসাইন ট্রাভেলস, লন্ডন টি এক্সচেঞ্জ, তাজ স্টোর, মোহাম্মদ শাহ এন্ড কোং, পর্টম্যান এস্টেট এজেন্ট, আল আমিন ট্রাভেলস, কেয়ার ওয়ার্ল্ড লিমিটেড, লিটলস্টোন কাউন সলিসিটর, রোজভিউ হোটেল, ইউনিসফ্ট টেকনোলজি, ব্লুস্টোন ফাইন্যান্স, আল কিবলা হজ্ব এন্ড ওমরা ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস, কুশিয়ারা ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস, প্রবাসী পল্লী গ্রুপ, আলম এন্ড কোং, এনসিএল ট্যুরস, খান এসোসিয়েটস, প্রিন্ট আর্ট ফর ইউ, লন্ডন টাইগার, হোম ওয়ারেন্টি, এইচআরএন হকস্টন, আরিফ এন্ড কোং একাউন্টেট, মায়া এন্ড কোং সলিসিটর, এক্সেল প্রপার্টি লিমিটেড, নাগা কিং, এভুয়ারি সলিসিটর, সিটিগেইট একাউন্টেন্সি ।

বরাবরে মতো এবারও অনুষ্ঠানে সুস্বাদু খাবার পরিবেশন করেন অভিজাত ক্যাটারিং প্রতিষ্ঠান ইস্টার্ণ প্রাইড। অনুষ্ঠানের ফাঁকে ফাঁকে চলে বর্ণাঢ্য আয়োজনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সঙ্গীত পরিবেশন করেন বিলেতের শিল্পী পরশ মনি, প্রপা আনোয়ার, রাসেল হায়দার এবং চায়না চৌধুরীর সার্বিক তত্ত্ববধানে নৃত্য পরিবেশন করেন তালতরঙ্গ দল।

শেয়ার করুন