সৌদি জোটের অবরোধে দুর্ভিক্ষের পথে ইয়েমেন

অান্তর্জাতিক ডেস্ক :: ক্ষেপনাস্ত্র হামলার জেরে গত সোমবার থেকে ইয়েমেনে সাময়িকভাবে স্থল, নৌ ও আকাশপথ বন্ধ করে দেবার ঘোষণা দেয় সৌদি জোট। তাদের এই অবরোধে চরম মানবিক বিপর্যয়ে পড়েছে ইয়েমেন। এতে করে জাতিসংঘ ও রেডক্রসের মতো সংস্থার ত্রাণ কার্যক্রম স্থগিত হয়ে পরেছে। এই অবস্থাকে ত্রাণ কার্যক্রমে বিপর্যয় বলে অভিহিত করেছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো।

রেডক্রসের এক কর্মকর্তা বলেছেন, খাদ্য এবং ওষুধ সঠিকভাবে আক্রান্ত মানুষের কাছে পৌঁছানো যাচ্ছে না। তাই এটি এই মুহূর্তে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মানবিক বিপর্যয়ের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এদিকে এই মানবিক বিপর্যয় থেকে উত্তরণে জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা অবরোধ তুলে নেওয়ার জন্য সৌদি জোটের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি মার্ক লোকক বলেন, ‘আমি নিরাপত্তা পরিষদকে বলেছি যদি এই অবরোধ তুলে নেওয়া না হয়। তবে ইয়েমেন বিশ্বের সবচেয়ে বড় দুর্ভিক্ষের মধ্যে পড়বে।’

জাতিসংঘের মতে প্রায় ৭০ লাখ ইয়েমেনি দুর্ভিক্ষের শিকার হতে পারে।

বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

শনিবার ইয়েমেন থেকে সৌদি আরবের রাজধানী লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে হুথি বিদ্রোহীরা। সৌদি সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে বলা হয়, সৌদি প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় ক্ষেপণাস্ত্রটিকে আকাশেই ধ্বংস করা হয়। কিন্তু এর কিছু অংশ ঐ বিমানবন্দরে গিয়ে পড়ে।

এ ঘটনার জেরে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট সোমবার ইয়েমেনের স্থল, জল ও আকাশপথ বন্ধ করে দেয়।

শেয়ার করুন