শেষ মুহূর্তের গোলে আর্জেন্টিনাকে জেতালেন আগুয়েরো

স্পোর্টস ডেস্ক :: ২০১৮ বিশ্বকাপের প্রস্তুতিপর্বের শুরুটা খারাপ হয়নি আর্জেন্টিনার। শনিবার রাতে রাশিয়ার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে আর্জেন্টাইনদের জয়টা ১-০ গোলে। এই জয়টাও পেয়েছে সার্জিও আগুয়েরোর শেষ মুহূর্তের গোলে। ৮৬ মিনিটে হেড করে দলকে জয় এনে দেন ম্যানচেস্টার সিটির ফরোয়ার্ড।

জয়ের ব্যবধান কত, তার জয় পাওয়াটাই গুরুত্বপূর্ণ। আগামী জুন-জুলাইয়ে এই রাশিয়াতেই অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপের স্বাগতিক দলের বিপক্ষে জয় দিয়ে প্রস্তুতি মিশন শুরু করতে পারাটাই বড় ব্যাপার। আর্জেন্টিনার কোচ হোর্হে সাম্পাওলিও দলের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট।

বিশ্বের যেকোনো দলের জন্যই রাশিয়ার প্রতিকূল পরিবেশে নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলা কঠিন। কিন্তু মেসির নেতৃত্বে আর্জেন্টাইনরা মস্কোতে কাজটা দারুণভাবেই করেছে। খেলেছে নিজেদের খেলাটাই। ম্যাচের বেশীর ভাগ সময়ই বল পায়ে রেখেছে তারা। ছোট ছোট পাসে পরিকল্পনা করেই গড়েছে আক্রমণ।

কিন্তু কাঙ্খিত গোলটাই তারা পাচ্ছিল না। অবশেষে ৮৬ মিনিটে গোল নামের সেই ‘সোনার হরিণে’র দেখা পায় আর্জেন্টিনা। অবশ্য গোলটা নিয়ে বিতর্কও আছে। ক্রিস্তিয়ান পাভোনের পাস থেকে পাওয়া বলে আগুয়েরোর শট প্রথমে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন রাশান ডিফেন্ডার ডজিকিয়া। কিন্তু ফিরতি বলে হেড করে ঠিকই বল জালে জড়িয়ে দেন আগুয়েরো। এই গোলের মধ্য দিয়ে আগুরো টপকে গেছেন কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনাকে। আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের হয়ে এটা তার ৩৫ তম গোল। ম্যারাডোনা করেছেন ৩৪ গোল।

কিন্তু রাশিয়ানরা গোলটা হওয়ার আগেই অফসাইডের আবেদন করেন রেফারির কাছে। তাদের দাবি, বল ধরার আগে অফসাইডে ছিলেন পাভোন। ম্যাচে ভিডিও অ্যঅসিস্টেন রেফারি টেকনোলজির ব্যবহার করা হয়নি। পাভোনের বিরুদ্ধে রাশানদের অফসাইডের আবেদনও রেফারি কানে তুলেননি। কিন্তু রিপ্লেতে পরিস্কার, পাস দেওয়ার আগে সত্যিই অফসাইডে ছিলেন পাভোন।

পাভোন অফসাইডে ছিলেন কি ছিলেন না, তা নিয়ে মাথা ঘামাতে আর্জেন্টাইনদের বয়েই গেছে। তারা গোল পেয়েছে, সেই গোলে জয় এসেছে, মেসিরা বরং রেফারির উপর কৃতজ্ঞই! ম্যাচ শেষে আর্জেন্টাইন অধিনায়ক মেসির কণ্ঠে সন্তুষ্টই ঝরল, ‘আমরা পরিকল্পনা মতোই অনেক বেশী আক্রমণ করেছি।’ তবে আক্রমণের পর আক্রমণ করেই গোলের দেখা না পাওয়ার একটা খামতি আছেই। মেসি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, সামনের দিনগুলোকে সেই দিকে নজর দেবেন।

শেয়ার করুন