বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবীতে সিলেটে প্রথম সভা আয়োজনের দিনটি আমাদের জন্য গৌরবের

প্রফেসর মো. আব্দুল আজিজ

ডেস্ক রিপোর্ট:বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবীতে সিলেটে অনুষ্ঠিত প্রথম সভা আয়োজনের ৭০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, ভাষা সৈনিক প্রফেসর মো. আব্দুল আজিজ বলেছেন, বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার জন্য সিলেটেই সর্বপ্রথম আন্দোলন দানা বেধে উঠে। রাজনীতি, সমাজ, সংস্কৃতির বিকাশ-সমৃদ্ধি কোনো ক্ষেত্রেই সিলেট পিছিয়ে নয়। এরই ধারাবাহিকতায় পাকিস্তান সৃষ্টির সাথে সাথে সিলেটে ১৯৪৭ সালের ৯ নভেম্বর রাষ্ট্রভাষা বাংলার পক্ষে সভা অনুষ্ঠিত হয়, যা পরবর্তী সকল আন্দোলনে প্রেরণা হিসেবে কাজ করেছে। দিবসটির কথা আমরা যেন ভুলতে বসেছিলাম। প্রেরণা ও গৌরবের এদিনটি আমাদেরকেস্মরণ করতে হবে এবং এ ধরণের উদ্যোগের জন্যে লেখক সংগঠক সেলিম আউয়াল ধন্যবাদপাবার দাবীদার।
দেশের প্রাচীনতম সাহিত্য প্রতিষ্ঠান কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সাহিত্য আসর কক্ষে সাহিত্য সংগঠন কৈতর সিলেট-এর উদ্যোগে প্রথমবারের মতো দিবসটি পালন উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। কৈতর সিলেট-এর চেয়ারম্যান, সাংবাদিক-সংগঠক সেলিম আউয়ালের সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভাষাসৈনিক অধ্যক্ষ মাসঊদ খান এবং বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গবেষক আবদুল হামিদ মানিক, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবির, সিলেট জেলা বার এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি এডভোকেট এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন, সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুহম্মদ বশিরুদ্দিন। সিলেট এক্সপ্রেস-এর স্টাফ রিপোর্টার তাসলিমা খানম বীথির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মুসলিম সাহিত্য সংসদের কোষাধ্যক্ষ ছড়াকার এডভোকেট আব্দুস সাদেক লিপন, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কার্যকরী পরিষদের সদস্য মাওলানা ফজলুল করিম আজাদ, সৈয়দ মোহাম্মদ তাহের এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন সিলেট বিভাগীয় কমিটির সভাপতি আবদুল বাতিন ফয়সল। সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন লেখক মাওলানা শামসীর হারুনুর রশীদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গবেষক আবদুল হামিদ মানিক বলেন, বাংলা ভাষাকে তৎকালীন পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার জন্য সাহিত্য সংসদের উদ্যোগে ১৯৪৭ সালের ৯ নভেম্বর যে সভা করা হয়েছিলো তা ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। ঝুঁকি নিয়ে সভা আয়োজনের মাধ্যমে বাংলার মর্যাদা রক্ষায় আমাদের পূবসূরীরা ঐতিহাসিক দায়িত্ব পালন করে আমাদেরকে কৃতজ্ঞতার বন্ধনে আবদ্ধ করেছেন।
সিলেট জেলা বার এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি এডভোকেট এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন বলেন, বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য সিলেট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। নতুন প্রজন্মকে এ ব্যাপারে জানতে হবে। সিলেটে ভাষা আন্দোলনের অগ্রসৈনিক আব্দুল হামিদ চৌধুরী সোনা মিয়া, মুসলিম চৌধুরী, সৈয়দ মুজতবা আলী, দেওয়ান আহবাবসহ আমাদের অগ্রজদেরকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে।
সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবির বলেন, বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার জন্য সিলেট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। কিন্তু যথাযথ প্রচারণার অভাবে এই সত্যটি সবার আড়ালেই থেকেই যায়। এ ব্যাপারে কৈতর সিলেট সভা আয়োজনের মাধ্যমে বিষয়টি সামনে এনে আমাদেরকে সচেতন করে তুলছে।
সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রবীণ সাংবাদিক মুহম্মদ বশিরুদ্দিন বলেন, দেশের যেকোনো আন্দোলনে সিলেট সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়।

শেয়ার করুন