প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের পাঠ্যবইয়ে ব্যাপক দুর্নীতি: টিআইবি

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: প্রতিবছরই সরকার প্রাথমিক ও মাধ্যমিকে বিনা মূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করে থাকে। সেখানে ব্যাপক হারে দুর্নীতিরও অভিযোগ উঠে। আর এই পাঠ্যপুস্তকের পাণ্ডুলিপি প্রস্তুত, ছাপা ও বিতরণের সময় নানা ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতি হয় বলে এক গবেষণায় তুলে ধরেছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) কর্মকর্তারাও এসব অনিয়ম দুর্নীতিরে সঙ্গে জড়িত বলে গবেষণায় উঠে আসে।

সোমবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে টিআইবি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন গবেষক মোরশেদা আক্তার। প্রতিবেদনে বলা হয়- পাঠ্যবই ছাপায় দুই ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতি হয়। প্রথমত, ব্যক্তিগত আর্থিক সুবিধা আদায় এবং দ্বিতীয়ত, কার্যাদেশ প্রদানে দুর্নীতি।

প্রতিবেদনে পাঠ্যবইয়ের পাণ্ডুলিপি প্রণয়নের প্রক্রিয়া চিত্র তুলে ধরে বলা হয়, পাঠ্যপুস্তক তৈরি, ছাড়া ও বিতরণের জন্য ক্ষমতাসীন দলের মতাদর্শীদের মতকে প্রাধান্য দেয়া হয়। সেক্ষেত্রে মতপার্থক্যের কারণে কোনও কোনও সময় কমিটিতে যোগ্য লোকদেরও বাদ দেয়া হয়।

গবেষণা প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, সম্প্রতি পাঠ্যপুস্তকে পরিবর্তনের নামে প্রতিক্রিয়াশীলতার পরিচয় দেয়া হয়েছে। সাম্প্রদায়িক দৃষ্টিভঙ্গির বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। নতুন কোনও সরকার ক্ষমতায় আসলে তারা আবার বর্তমান পরিবর্তন পাল্টে দেবে। বিষয়ে ও শব্দে পরিবর্তন নিয়ে আসবে।

শিক্ষাক্রম অনুসরণ না করেই অনেক সময় অনিয়মতান্ত্রিকভাবে লেখা পরিবর্তন করা হয় বলেও ওই গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়।

পাঠ্যপুস্তক ছাপার সময়ের অনিয়মের বিষয়টি তুলে ধরে প্রতিবেদনে বলা হয়, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) কর্মকর্তাদের একাংশ পাঠ্যবই ছাপার দরপত্র আহ্বানের আগেই প্রস্তাব অনুযায়ী প্রাক্কলিত দর কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে জানিয়ে দেয়। ফলে এসব প্রতিষ্ঠান নিজেদের মধ্যে সমঝোতা করে দরপত্র জমা দেয়।

পাঠ্যবেই বিতরণেও থাকে নানা অনিয়ম দুর্নীতি। কিছু কিছু জেলায় নির্ধারিত সময়ে পাঠ্যবই শিক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছে দেয়া না হলেও পরে সঠিক সময়ে শিক্ষার্থীরা বই পেয়েছে বলে প্রতিবেদন তৈরি করা হয়।

গবেষণা প্রতিবেদনে প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের এইসব পাঠ্যপুস্তক ছাপা ও বিতরণের যে সমস্যা তার সমাধানেও একাধিক সুপারিশ তুলে ধরা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান সহ অন্যান্যরা উপস্থিতি ছিলেন।

শেয়ার করুন