পদত্যাগ করলেন প্রীতি প্যাটেল, বৃটিশ রাজনীতিতে ঝড়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: বৃটিশ রাজনীতিতে তোলপাড়। একের পর এক আঘাতে দৃশ্যত অনেকটাই বিব্রতকর অবস্থায় প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। একদিকে এমপি, মন্ত্রীদের যৌন কেলেঙ্কারির অভিযোগ। আর সেই অভিযোগে পদত্যাগও করে ফেলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী স্যার মাইকেল ফ্যালন।

এ ঘটনার এক সপ্তাহ পাড় না হতেই আরেক ধাক্কা। এবার পদত্যাগ করেছেন তার আন্তর্জাতিক উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল।

ক্রমশ চাপ বাড়ছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসনের পদত্যাগের। এ ছাড়া বৃটেনে সন্ত্রাসী হামলার রয়েছে বড় ঝুঁকি। সবকিছু মিলিয়ে জেরবার প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে।

বৃটিশ মিডিয়া রিপোর্ট দিচ্ছে, এরই মধ্যে সরকার ভেঙে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিযেছে। প্রীতি প্যাটেল পদত্যাগ করেছেন সরকারের অগোচরে ইসরাইলের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করা নিয়ে। বিতর্কিত গোলান উপত্যকা সফর করেছেন তিনি। ইসরাইলের সেনাবাহিনীকে বৃটেনের আর্থিক সহায়তা দেয়া উচিত বলেও ইসরাইলি কর্মকর্তাদের সঙ্গে তিনি গোপন আলোচনা করেছেন। ব্যক্তিগত পর্যায়ে ইসরাইল সফরে গিয়ে তিনি সেখানকার রাজনৈতিক নেতা ও লবিস্টদের সঙ্গে সাক্ষাতে এসব কথা বলেছেন।

একই রকম অভিযোগ আছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসনের বিরুদ্ধে। বরিস জনসনের পদত্যাগ দাবি করা হয়েছে। কিন্তু তিনি এখনও অটল আছেন। ঝরে গেছেন প্রীতি প্যাটেল। তবে তিনি ঝরে গেছেন মানে তিনি শেষ হয়ে যান নি। প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে’কে সতর্ক করে দিয়েছেন।

বলেছেন, তিনি ব্রেক্সিট প্রক্রিয়ায় তার জন্য কাঁটা হয়ে দাঁড়াবেন। এ ঘটনায় প্রীতি প্যাটেলের আফ্রিকা সফর বাতিলের নির্দেশ দেন তেরেসা মে। তার প্রেক্ষিতে তিনি বুধবার দিবাগত রাতে পদত্যাগ করেন। তিনি দাবি করেন, ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াুহুর সঙ্গে তার যে সাক্ষাত হয়েছিল তা জানতেন প্রধানমন্ত্রী তেরেসা। তবে ১০ ডাউনিং স্ট্রিট এ বিষয়টি স্বীকার করছে না।

শেয়ার করুন