জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট এমারসন এমনানগাগওয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন এমারসন এমনানগাগওয়া। শুক্রবার সকালে রাজধানী হারারের ন্যাশনাল স্পোর্টস স্টেডিয়ামে তিনি শপথ নেন। এ সময় সেখানে উপস্থিত হাজারো সমর্থক তাক স্বাগত জানান। শপথ গ্রহণের পর সংবিধান সমুন্নত রাখা এবং সব নাগরিকের অধিকার নিশ্চিতের প্রতিশ্রুতি দেন এমারসন এমনানগাগওয়া। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

এমারসন এমনানগাগওয়া রবার্ট মুগাবে প্রশাসনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন। স্ত্রীকে ভাইস প্রেসিডেন্ট করতে তাকে বরখাস্ত করেন মুগাবে। এর জের ধরেই ৩৭ বছরের শাসক রবার্ট মুগাবেকে ক্ষমতাচ্যুত করে সেনাবাহিনী।

নিরাপত্তা ঝুঁকির কারণে দুই সপ্তাহ আগে দক্ষিণ আফ্রিকায় পালিয়ে এমনানগাওয়া বুধবার দেশে ফেরেন। দুই দিনের মাথায় শুক্রবার তিনি প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন। তবে এর আগে রবার্ট মুগাবে ও তার স্ত্রীকে দায়মুক্তি দেওয়া হয়েছে। এর ফলে তাদের কোনও বিচারের মুখোমুখি হতে হবে না এবং তারা জিম্বাবুয়েতেই বসবাস করতে পারবেন।

জিম্বাবুয়ের প্রতিরক্ষাবাহিনীর মুখপাত্র কর্নেল ওবারসন মুগওয়াইসি জানান, মুগাবের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এতে তাকে ও স্ত্রী গ্রেসকে দায়মুক্তি ও দেশে নিরাপদে বসবাসের নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে।

সেনাবাহিনী রাজধানী হারারের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর প্রায় এক সপ্তাহ দরকষাকষি করেন মুগাবে। সেনাবাহিনী তাকে নিজ বাড়িতে গৃহবন্দি করেছিল। শেষ পর্যন্ত শুক্রবার নতুন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নিলেন এক সময়ের ডান হাত বলে পরিচিত এমারসন এমনানগাগওয়া।

শুক্রবার শপথগ্রহণের পর পূর্বসূরি রবার্ট মুগাবে’র প্রতি শ্রদ্ধা জানান এমারসন এমনানগাগওয়া। এ সময় তিনি মুগাবেকে ‘একজন পিতা, পরামর্শদাতা এবং নেতা’ হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

শেয়ার করুন