চলে গেলেন আখতার হামিদ সিদ্দিকী

সিলেটের সকাল ডেস্ক ::  অষ্টম জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ও বিশিষ্ট পার্লামেন্টারিয়ান আখতার হামিদ সিদ্দিকী আর নেই। আজ রোববার দুপুরে রাজধানীর একটি হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭১ বছর।

বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আখতার হামিদ সিদ্দিকীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আখতার হামিদ সিদ্দিকী স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন। তিনি ১৯৯১ সালের নির্বাচন থেকে শুরু করে চার বার নওগাঁ-৩ আসন থেকে বিএনপির মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তাঁর গ্রামের বাড়ি নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলায়।

বিএনপির চেয়ারপারসনের গণমাধ্যম শাখার কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান জানান, আজ দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে ইউনাইটেড হাসপাতালে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আখতার হামিদ সিদ্দিকী ইন্তেকাল করেন। শনিবার সকালে বুকে ব্যথা অনুভব করার পর তাঁকে ওই হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল। এ ছাড়া তিনি ফুসফুসের ক্যানসারেও ভুগছিলেন।

এদিকে আজ আসরের নামাজের পর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আখতার হামিদ সিদ্দিকীর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর তাঁর মরদেহ ইউনাইটেড হাসপাতালের হিমঘরে নেওয়া হয়। মরহুমের বড় ছেলে পারভেজ আরেফিন সিদ্দিকী বার্তা সংস্থা ইউএনবিকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

এদিকে বিএনপির সহদপ্তর সম্পাদক বেলাল আহমেদের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, আগামীকাল ২০ নভেম্বর সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় আখতার হামিদ সিদ্দিকীর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। শুভানুধ্যায়ীদের যথাসময়ে মরহুমের জানাজায় শরিক হওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো।

ওই জানাজার পর আখতার হামিদ সিদ্দিকীকে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলায় গ্রামের বাড়ি নেওয়া হবে। সেখানে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হবে।

আখতার হামিদ সিদ্দিকী ১৯৪৭ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করে রাজনীতিতে যোগ দেন।

শেয়ার করুন