তুরস্কের দুই সাংবাদিককে আটক করল মিয়ানমার

সিলেটের সকাল ডেস্ক।। মিয়ানমার পার্লান্টে এলাকায় ড্রোন উড়ানোর অভিযোগ এনে তুরস্কের দুই সাংবাদিকসহ তাদের দুভাষী গাড়ি চালককে আটক করেছে মিয়ানমার পুলিশ।

শনিবার (২৮ অক্টোবর) সকালে তাদেরকে আটক করা হয়। অভিযোগে বলা হয়েছে, তারা মিয়ানমারের পার্লামেন্ট এলাকার কাছে ড্রোন উড়িয়েছিলেন। এমনিতেই মিয়ানমার ও তুরস্কের মধ্যে উত্তেজনা তুঙ্গে।

তার মধ্যে নতুন করে সাংবাদিক বন্দি করায় পরিস্থিতি আরো উত্তেজনাকর হয়ে উঠতে পারে। আটক দু’ সাংবাদিকের নাম লাউ হন মেং ও মক চোই লিন। তারা রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন টিআরটিতে কাজ করেন।

প্রথমজন সিঙ্গাপুর থেকে এবং দ্বিতীয় জন মালয়েশিয়া থেকে গিয়েছেন সেখানে। তাদেরকে আটক করে মিয়ানমারের রাজধানী ন্যাপিড’তে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

এতে বলা হয়, শনিবার সকালে তাদেরকে আটক করা হয়। এর আগে মিয়ানমারে তাদের দোভাষী, স্থানীয়ভাবে সুপরিচিত সাংবাদিক অং নাইং সোয়ে’র ইয়াঙ্গুনের বাসা শুক্রবার সন্ধ্যায় ঘেরাও করে পুলিশ। সেখান থেকে জব্দ করে তার কম্পিউটার ও এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব ডকুমেন্ট। তারা অং নাইং সোয়ে’র বিভিন্ন ডকুমেন্টের তল্লাশি করতে থাকে।

ন্যাপিড পুলিশ স্টেশন-১ এর কর্মকর্তা শয়ে থাউং বলেছেন, তারা মোট চারজনকে আটক করেছেন। তবে তিনি বিস্তারিত জানাতে অস্বীকৃতি জানান। আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ গঠন করা হয়েছে কিনা সে বিষয়ে তিনি চলমান তদন্তের কথা তুলে কোনো কথাই বলেন নি।

উল্লেখ্য, গত ২৫ শে আগস্ট রাখাইনে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর পোস্ট ও ক্যাম্পে হামলা চালায় আরাকান রোহিঙ্গা সালভেশন আর্মি (আরসা)। তারপর থেকেই মিয়ানমারের সেনাবাহিনী সহ নিরাপত্তা রক্ষাকারী অন্যান্য বাহিনী, স্থানীয় দোসররা নৃশংস নির্যাতন চালায় রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর। এর ফলে বাস্তুচ্যুত কমপক্ষে ছয় লাখ রোহিঙ্গা মুসলিম পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে বাধ্য হন। ওদিকে সেপ্টেম্বরের শুরুতে রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে মিয়ানমার সরকার ‘গণহত্যা’ চালাচ্ছে বলে মন্তব্য করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যিব এরদোয়ান।

শেয়ার করুন