‘সরকার সিলেটের পর্যটন সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চায়’

সিলেটের সকাল ডেস্ক ।। সিলেট জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল আহাদ বলেছেন, ‘সিলেট বাংলাদেশের অন্যতম পর্যটন এলাকা। সরকার এই এলাকার পর্যটন সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চায়। এই লক্ষ্যে পর্যটনের উন্নয়নে প্রশাসনের অন্যান্য বিভাগের সাথে সিলেট জেলা পরিষদ নানামুখী উদ্যোগ বাস্তবায়নে কর্মসূচী হাতে নিয়েছে।’

তিনি বলেন, সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে আমরা সব ধরনের কাজ সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে বদ্ধপরিকর। সিলেট ওসমানি বিমান বন্দরের পাশে পর্যটন ৪৪ একর জায়গা বাউন্ডারী দিয়ে পর্যটন জোন তৈরির কাজ হচ্ছে বলেন বক্তব্যে উল্লেখ করেন। তিনি রাতারগুল, জাফলং ও বিছানাকান্দিতে বাসার জায়গা, ওয়াশ ব্লক ও টাওয়ার নির্মানের কাজের টেন্ডার হয়েছে কাজ শুরু হবে বলে জানান।

বুধবার জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে জেলা পরিষদ সিলেট এর সহযোগিতায় এবং আটাব সিলেট জোন ও সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাবের যৌথ উদ্যোগে আলোচনা সভা প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন।

আটাব সিলেট এর সভাপতি আব্দুল জব্বার জলিল এর সভাপতিত্বে এবং সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক হুমায়ুন কবির লিটনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির, ট্যুরিস্ট পুলিশ সিলেট জোনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মুশাররফ হোসেন ।

বক্তব্য রাখেন পর্যটন কর্পোরেশন সিলেটের বিদায়ী ম্যানেজার জাহিদ হাসান, নবাগত ম্যানেজার আখলাকুর রহমান, ওয়াকার্স পার্টি সিলেটের সাধারন সম্পাদক সিকান্দার আলী, স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাবের সহ-সাধারন সম্পাদক ফখরুল ইসলাম মিয়া ।

আরো বক্তব্য রাখেন এম.সি কলেজ ট্যুরিস্ট ক্লাবের সহ সভাপতি সাংবাদিক আবু বকর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম রাফী, আটাব সিলেটের সদস্য আব্দুল কাদির, হাব সিলেটের সহ সভাপতি তৈয়বুর রহমান, সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাবের প্রচার সম্পাদক মাজহুরুল ইসললাম সাদি, সদস্য দেলোয়ার হোসেন রানা, শাহজালাল ট্যুরিস্ট সোসাইটির সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম রইসুল খান।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন সিলেট আটাব এর সাধারণ সম্পাদক রেদওয়া, নির্বাহী সদস্য দেওয়ান রুশো চৌধুরী, সিলেট সুরমা ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক খালেদ আহমদসহ সিলেট পর্যটন কর্পোরেশনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ, জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ ও বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা।

শেয়ার করুন