বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জার্মানির উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন

সিলেটের সকাল ডেস্ক।। জার্মানির মাইনস শহরে এক অভিজাত হোটেলের বলরুমে বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় স্মরণ করা হয়েছে বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪২তম শাহাদতবার্ষিকী নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানের প্রথমে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জার্মানের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা ছাড়াও জার্মানের প্রবাসী ও বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জার্মানির নেতারা। বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জার্মানির সাংস্কৃতিক সম্পাদিকা কণা  ইসলাম এর কণ্ঠে বাংলাদেশ ও জার্মানের জাতীয় সংগীত পরিবেশিত হয়।

অনুষ্ঠানে  বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন জার্মানি এর সভাপতি ইউনুস আলী খান, পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মাহমুদুল গনি ও সহসভাপতি হাকিম টিটু।

প্রধান অতিথি,র বক্তব্য রাখেন কে ও কে এর প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডঃ ড্রিংক লুম্যান্স | এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নেদারল্যান্ডস বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি ডেভিড রহমান , আইনজীবী ম্যানুয়েল মেটস, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা সিডিও মাইনস এর কোষাধক্ষ কাস্টেন লান, জ্যৈষ্ঠ সহসভাপতি মনিরুল আলম ,মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম মানহাইন , উপদেষ্টা আবু সেলিম , উপদেষ্টা মাহবুবুবুল হক,উপদেষ্টা নুরুল ইসলাম ,ব্যবসায়ী নেতা আলম সাহা, সদস্য রানা ।

এসময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সমাজসেবক মোহাম্মদ নূর, নূরে হাসনাত,সহসভাপতি বদরুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সদস্য জাহানারা আক্তার জোসনা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্নিগ্ধা বুলবুল , সালিম, ডাঃ আতিকুর রহমান সবুজ ,সিডিএ মেম্বার গাব্রিয়েলা মোলার ,আরজু স্টুটগার্ড ,শহীদুল্লাহ চেয়ারম্যান ,শারমিন, আমানুল্লাহ, রাজু খান, সালিম,কামাল।

অনুষ্ঠানে এসময় উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা আমিনুর রহমান খসরু, মুজিবুর রহমান ,মোস্তাফিজুর রহমান , আকলিমা রহমান ,নাজমা হেকিম,শেখ মিঠু , সুলেমান মোল্লা , রওশনারা আরা সেলিম , বদরুল হায়দার , রওশনারা ।

জাতীয় শোক দিবসে আলোচনা সভায় আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ এর প্রেরিত প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শোনান সাংবাদিক মনোয়ারা মনি ।

এসময় বক্তব্যে বক্তারা বঙ্গবন্ধুর দীর্ঘ সংগ্রামী জীবন, রাজনৈতিক আদর্শ ও বাংলাদেশ নামক একটি স্বাধীন রাষ্ট্র গঠনে তাঁর অবদানের কথা তুলে ধরেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধুর কর্মজীবন ও দীর্ঘ সংগ্রামের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে আরও বেশি করে তুলে ধরার আহ্বান জানান। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান।

 

অনুষ্ঠানের শেষ অংশে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুসহ যারা নিহত হয়েছেন তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।

শেয়ার করুন