ছাতকে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রামবাসীকে হয়রানির অভিযোগ

সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন

সিলেটের সকাল ডেস্ক ।। সুনামগঞ্জের ছাতকে অসামাজিক কার্যকলাপে বাধা দেয়ায় প্রবাসীর ইন্ধনে পঁচাত্তর বছরের বৃদ্ধ এবং আলেম-ওলামাসহ গ্রামের মুরিব্বদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে সুহিতপুর গ্রামবাসীর পক্ষে এ অভিযোগ করে সৈয়দেরগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সুন্দর আলী।

লিখিত বক্তব্যে সুন্দর আলী বলেন, সুহিতপুর গ্রামে যুক্তরাজ্য প্রবাসী আব্দুল মনাফের বাড়ি দেখাশোনা করে আলী হোসেন বুলুর স্ত্রী নাজমা আক্তার। নাজমা তার স্বামীর সরলতার সুযোগে অনৈতিক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়লে বুলু তাকে ছেড়ে অন্যত্র বিয়ে করেন। এরপর নাজমার অনৈতিক কর্মকান্ড আরো বেড়ে যায়। গ্রাম পঞ্চায়েত তাকে অপকর্ম থেকে বিরত রাখতে বাড়ির মালিক প্রবাসী আব্দুল মনাফকে বারবার অনুরোধ জানালেও কোন প্রতিকার হয়নি। উল্টো গত ৩ জুলাই ঞ্চায়েতের বয়োবৃদ্ধ মুরব্বি, মসজিদের মোতায়াল্লি, মাদরাসা পড়–য়া ছাত্র ও আলেম ওলামাসহ ৩০ জন নিরীহ মানুষকে আসামি করে ছাতক থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করা হয়।

তিনি আরো বলেন, মিথ্যা এই মামলায় গ্রেফতার আতঙ্কে গ্রামের মানুষ পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। এমতাবস্থায় গত ২১ জুলাই অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ঘটনা সম্পর্কে জানতে গ্রামে আসেন। গ্রামবাসীর বক্তব্য শোনে তিনি আশ্বস্ত করেন বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে। কাউকে হয়রানি করা হবে না এবং গ্রামবাসীকে শান্ত থাকার পরামর্শ দেন। কিন্তু অর্থের বিনিময়ে ছাতক থানা পুলিশ গ্রামবাসীকে বারবার হয়রানি করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। এর কারণে গত ২৫ জুলাই বিভাগীয় কমিশনার, ডিআইজিসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা বরাবরে পুলিশের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

সংবাদ সম্মেলনে গ্রামের প্রায় অর্ধশত বাসিন্দা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন