সিলেটে বন্যায় পানিবাহিত রোগের প্রাদুর্ভাব

সিলেটের সকাল রিপোর্ট ।। ভারি বর্ষন ও উজান থেকে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেটের বিভিন্ন উপজেলায় সৃষ্ট বন্যায় পানিবাহিত রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে।  তবে পরিস্থিতির সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা।

আমাদের উপজেলা প্রতিনিধিরা জানান, জকিগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, গোলাপগঞ্জ, ফেঞ্চুগঞ্জ, বালাগঞ্জ, ওসমানী নগর, কানাইঘাটের একাংশ, বিশ্বনাথ ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ডায়রিয়াসহ চর্মরোগের প্রভাব দেখা দিয়েছে। বন্যায় সৃষ্টির পর থেকে বানভাসী মানুষরা বিশুদ্ধ পানির সংকটে ভুগছেন। তারা বন্যার ময়লা পানি দিয়ে থালা বাসন ও পোশাক পরিষ্কার করছে।

অসচেতনভাবে ময়লা পানির ব্যবহারে ব্যাপকহারে  চর্মরোগের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ছে। বিশুদ্ধ খাবার পানির জন্য ডায়রিয়া ও আমাশয় রোগের  প্রভাব বিস্তার হচ্ছে। বিশেষ করে পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা। এনিয়ে স্বাস্থ্য সচেতন তৎপরতা পর্যাপ্ত না থাকায় রোগের বিস্তার ঘটছে বলেও জানিয়েছেন তারা।

এদিকে, বন্যা থেকে পানিবাহিত রোগের প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় কয়েকটি মেডিকেল টিম কাজ করছে বলে জানিয়েছেন সিলেটের সিভিল সার্জন ডা: হিমাংশু লাল রায়। তারা বন্যায় পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করছেন বলে জানান তিনি।

তিনি আরোও জানান, ইতোমধ্যে পানিবাহিত রোগ মোকাবেলায় বন্যা কবলিত এলাকায় এক লাখ পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও আরো প্রায় দেড় লাখ পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট ও এক লাখ ওরস্যালাইন মজুদ রয়েছে। প্রয়োজনে এগুলো বিতরণ করা হবে

শেয়ার করুন