লন্ডনেএসিড হামলার ঘটনায় কমিউনিটিতে উদ্ধেগ

সিলেটের সকাল ডেস্ক ।। একের পর এক লন্ডনে এসিড হামলাসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী হামলায় কমিউনিটিতে আতঙ্ক বিরাজ করছে। আর এই আতঙ্ক নিয়ে মুসলিম কমিউনিটিতে চরম উদ্বেগ দেখা যাচ্ছে।

এ ব্যাপারে কমিউনিটি নেতা আবু তাহের চৌধুরী বলেন, ‘এটা অত্যন্ত নিন্দনীয়। আমাদের কমিউনিটির সাবর এই পরিস্থিতি শান্তভাবে মোকাবেলা করা দরকার। ব্রিটেনের বহুজাতিক সমাজে আমরা সবাই মিলেমিশে বসবাস করতে চাই। যারা  এসিড হামলা চালিয়েছে তাদের যেনো সরকার দ্রুত গ্রেফতার করে শাস্তি প্রদান করে সেই দাবি জানাচ্ছি।’

সাম্প্রতিক এসিড হামলা নিয়ে প্রবাসী লেখক ও সাংবাদিক চ্যানেল আই ইউকে’র বার্তা সম্পাদক মুনজের আহমেদ চৌধুরী বলেন, গত জুনে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত বৃটিশ নাগরিক রেশাম খানের গাড়িতে এসিড নিক্ষেপের ঘটনার মধ্য দিয়ে সামপ্রদায়িক ওই হিংস্রতার বিষয়টি প্রকাশ্যে এসেছে। এটি গোটা মুসলিম কমিউনিটি বিশেষত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতদের মধ্যে চরম উৎকণ্ঠা এবং চরম নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টি করেছে, যা বৃটেনে কখন কল্পনাই করা যেতো না। এর আগেও এমন ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। তবে রেশাম খানের ওপর এসিড হামলার ঘটনাটি বৃটেনের মিডিয়ায় প্রথম এবং ব্যাপক প্রচার পায়। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত বৃটিশ নাগরিক অধুষ্যিত পুর্ব লন্ডনের রাস্তায় হামলাটি হয়। পরবর্তীতে বিভিন্ন সুপার শপ, রাস্তা, পার্কে আচমকা হামলা বা হামলার চেষ্টার বহু ঘটনা ঘটেছে। এতে অনেকে আহত হয়েছে। শুরুর দিকে বিষয়টি স্পষ্ট না হলেও এখন বিষয়টি ওপেন-সিক্রেট যে এটি সাম্প্রদায়িক হামলা। লন্ডন ও মানচেষ্টারে মুসলিম নামধারী উগ্রপন্থিদের হামলার পর থেকে প্রতিহিংসা বা প্রতিশোধের কারণে নিরীহ মুসলিমদের টর্গেট করা হচ্ছে। সেখানে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন নারী ও তরুণীরা।  সবচেয়ে উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে বৃটেনের মত দেশে এসিড সহজলভ্য হয়ে যওয়া! এটি মুসলিম বিদ্বেষী উগ্রপন্থিদের হাতে হাতে রয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে এ ধরনের হেইট ক্রাইম নিয়ন্ত্রণে লন্ডনের প্রশাসনও উদ্বিগ্ন। একটি কথা আজ সবাই বলছেন, উগ্রপন্থার সঙ্গে ধর্মপ্রাণ মুসলমান বা ইসলামের কোনো সম্পর্ক নেই।

উল্লেখ্য, লন্ডনে মোটরসাইকেলে (মোপেড) চড়ে দুই লোক মাত্র ৯০ মিনিটের মধ্যে ৫টি এসিড হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। লন্ডন পুলিশ বলেছে, এসিড লেগে একজন ভিকটিমের মুখে মারাত্মক ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে পূর্ব লন্ডনে এসব ঘটনা ঘটে। দৃশ্যত, ৫টি হামলাই একই সূত্রে গাঁথা।

শেয়ার করুন