‘রাজ পরিবারের কেউ রাজা-রানি হতে চায় না’

সিলেটের সকাল ডেস্ক।। শাসন কাজ কঠিন । অনিচ্ছাসত্ত্বেও কাউকে না কাউকে তো এটা করতে হয়। নিউজউইক ম্যাগাজিনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রিন্স হ্যারি  বলেছেন, রাজপরিবারের কোনো সদস্যই প্রকৃতপক্ষে আর সিংহাসনে বসতে চায় না।
তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি না রাজপরিবারের কেউ রাজা বা রানি হতে চান। তবে আমরা আমাদের কর্তব্য যথাসময়ে পালন করে যাব।’

ব্রিটিশ রাজ পরিবারের এই সদস্য বলেন, ‘আমরা ব্রিটিশ শাসনের আধুনিকায়নের সঙ্গে সম্পৃক্ত। আমরা নিজেদের জন্য এটা করছি না বরং জনগণের বৃহত্তর কল্যাণে এটা করছি।’

তিনি বলেন, ‘রাজপরিবারের কোনো সদস্য কি রাজা কিংবা রানী হতে চান? আমার মনে হয় না। তবে আমরা যথাসময়ে আমাদের দায়িত্ব পালন করব।’

ওই সাক্ষাৎকারে মায়ের প্রিন্স হ্যারি মায়ের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পর্কেও কথা বলেছেন। তিনি মনে করেন, মা প্রিন্সেস ডায়ানার মৃত্যুর পর শেষযাত্রার অনুষ্ঠানে কফিনের পেছনে সন্তানদের হেঁটে যাওয়ার বিষয়টি একদমই সঠিক ছিল না। তিনি বলেন, ‘১২ বছরের শিশুর জন্য এটা মোটেও ঠিক ছিল না।’

১৯৯৭ সালে ৩১ আগস্ট প্যারিসে এক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান প্রিন্সেস ডায়ানা। মৃত্যুর ছয় দিন পর তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবেতে যোগ দেন ১২ বছরের হ্যারিসহ তার বড় ভাই ১৫ বছরের উইলিয়াম, বাবা, দাদা ও চাচাসসহ রাজপরিবারের সদস্যরা।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে হ্যারি জানিয়েছিলেন, মায়ের মৃত্যুর শোক কাটাতে তাকে কাউন্সেলিং নিতে হয়েছিল।

নিউজউইককে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘আমার মা মারা গেছেন এবং আমাকে তার কফিনের পেছনে দীর্ঘ একটা পথ হেঁটে যেতে হয়েছে, যেখানে হাজার হাজার মানুষ আমাদের দেখছে। শুধু তা-ই নয়, টিভির সরাসরি সম্প্রচারে দেখছে কোটি কোটি মানুষ। আমি মনে করি না, কোনো শিশুকে কোনো অবস্থাতেই এটা করতে বলা উচিত। আমি মনে করি না আজকের দিনে এটা আর হবে।’

সাক্ষাৎকারে প্রিন্স হ্যারি জানান, ব্রিটিশ রাজতন্ত্রের আধুনিকীকরণে তিনি ও তার ভাই কাজ করছেন।

শেয়ার করুন