‘পাহাড়, পানি ও পাথরে’ হাজারো পর্যটকের মিতালি

আব্দুল্লাহ আল নোমান :: সুদৃশ্য পাহাড় চুড়া, স্বচ্ছ জল ও হরেক রঙের নুড়ি পাথরের এক অপূর্ব সমন্বয়ে গড়া জাফলং। যান্ত্রিক কোলাহল ছেড়ে জীবন এখানে এসে মাথা লুকোয় একটু শান্তির খোঁজে। প্রকৃতির মায়াবী পরশে আনন্দে নেচে ওঠে মন।

ঈদের ছুটিতে তাই পাহাড়, পানি ও পাথরভরা এই জাফলংয়ে মিতালি পেতেছে হাজারো পর্যটক। তিল ধারণের ঠাঁই নেই কোথাও। সিলেটসহ সারা দেশ থেকে এসেছে ভ্রমন পিপাসুরা।

সীমান্তের ওপারে ভারতীয় পাহাড়, ডাউকি পাহাড় থেকে অবিরাম ধারায় প্রবহমান জলপ্রপাত, ঝুলন্ত ডাউকি ব্রিজ, পিয়াইন নদীর স্বচ্ছ হিমেল পানি, উঁচু পাহাড়ের গহীন অরণ্য ও সুনসান নীরবতায় মোহাবিষ্ট তারা।

পাহাড়ের কোল ঘেঁষে বয়ে যাওয়া পিয়াইন নদীর স্বচ্ছ জলধারায় পা ভিজিয়ে আপন মনে খেলা করছিল ছোট্ট শিশু রিচি। অদূরে দল বেধেঁ সাতাঁর কাটছিল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী আশরাফ, রকিব, রাসেল, ইমরান, সাহান ও তাদের বন্ধুরা। ধবধবে সাদা দুটো পাথর কণা জেরিনের দুই হাতে।

শুধু তাই নয়; সাতার কাঁটতে পানিতে নেমে পড়েছিলেন সংবাদ কাভার করতে আসা সময় টিভির সিলেটের নিজস্ব প্রতিবেদন আব্দুল আহাদও।

দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা নানা বয়সী পর্যটকরা এভাবেই মেতে ওঠে অপার আনন্দে। পর্যটকের উপচে পড়া ভীড়ে প্রাণ ফিরে পেয়েছে জাফলং। স্থানীয়রা বলছেন, গতবারের চেয়ে এবার পর্যটক অনেক বেশি।

শুধু জাফলংই নয়, ঈদের ছুটিতে মুখর হয়ে ওঠেছে সিলেটের পর্যটন কেন্দ্রগুলো। প্রাকৃতিক সৌন্দের্যের কোলে চড়তে হাজার হাজার পর্যটকদের ঢল নেমেছে এ অঞ্চলের সবকটি পর্যটন আকর্ষণ কেন্দ্রে।

বরাবরের মত পর্যটকরা এবারও ঘুরে বেড়াচ্ছেন সিলেটের বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে। জাফলং ছাড়াও এবার এই তালিকায় যোগ হয়েছে মায়াবতী ঝর্ণা, বিছনাকান্দি, পানতুমাই, লোভাছড়া, রাতারগুলের মতো অসাধারণ প্রকৃতিক সৌন্দর্যের স্থান।

গোয়াইনঘাটের বিছানাকান্দির স্বচ্ছ জলে ছড়িয়ে আছে সফেদ রূপ আর পাথর-কণায় লুকিয়ে থাকা জলতলের সৌন্দর্য, জৈন্তাপুরের লালাখালের স্বচ্ছ নীল জলরাশি আর দুই ধারের অপরূপ সৌন্দর্য, দীর্ঘ নৌ-পথ ভ্রমণের সাধ যেকোনো পর্যটকের কাছে এক দুলর্ভ আকর্ষণ।

এছাড়া বাংলাদেশের কোল ঘেঁষে প্রতিবেশী ভারতের মেঘালয়ের গহীন অরণ্যের কোলে বাংলাদেশ পানে নেমে আসা অপরূপ ঝরনাধারার পানতুমাই, অনেকটা লোকচক্ষুর আড়ালে থাকা কানাইঘাট উপজেলার প্রাকৃতিক নৈসর্গের আরেক রূপ ‘লোভাছড়া’ এবং বাংলাদেশের একমাত্র জলারবন গোয়াইঘাটের রাতারগুলেও এবার ঢল নেমেছে পর্যটকের।

আবহাওয়া অনুকূল থাকায় সব পর্যটন কেন্দ্রই মুখর পর্যটকদের আনাগোনায়। শুধু ঘোরাঘুরিই নয়, দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা এসব পর্যটকরা সিলেটে হযরত শাহজালাল(র.) এবং শাহপরান (র.) এর মাজারও জিয়ারত করতে ভুলছেন না বলে তাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন