নগ্ন ছবি প্রকাশের অভিযোগ ; মুখ্যমন্ত্রী যোগীর বিরুদ্ধে মামলা

সিলেটের সকাল ডেস্ক।।  নগ্ন ছবি প্রকাশের অভিযোগে ভারতের উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এক নারী।

খবরে বলা হয়, লক্ষ্মী ওরাং নামে আসামের ওই আদিবাসী নারী ওই মহিলা ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারায় ও তথ্য-প্রযুক্তি আইনে সাব ডিভিশনাল জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে এ মামলা করেন। খবর ইন্ডিয়া টাইমসের

খবরে জানানো হয়, প্রায় ১০ বছর আগে যোগী আদিত্যনাথের একটি ফ্যান পেজ ফেসবুকে ওই নারীর নগ্ন ছবি পোস্ট করে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানায়। কংগ্রেসের মিছিলে লক্ষ্মী ওরাং নরেন্দ্র মোদি ও বিজেপির পক্ষে স্লোগান দেওয়ায় কংগ্রেস সমর্থকরা তাকে প্রকাশ্যেই নগ্ন করে মারধর করে বলে অভিযোগ তোলে বিজেপি। সেই সূত্রেই আক্রান্ত নারীর কয়েকটি নগ্ন ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করা হয়। সঙ্গে কংগ্রেসের তীব্র নিন্দা করে লেখা হয়, ‘বাংলার কংগ্রেস সমর্থকরা এক হিন্দু নারীকে বেধড়ক মারধর করেছে। ওই মহিলার দোষ, তিনি কংগ্রেসের মিছিলে মোদি জিন্দাবাদ বলেছিলেন। এই ছবি শেয়ার করে কংগ্রেসের আসল চেহারা প্রকাশ্যে নিয়ে আসুন।’

লক্ষ্মী ওরাং জানিয়েছেন, আসলে ছবিটি ২৪ নভেম্বর, ২০০৭-এ তোলা। সেই সময় গুয়াহাটিতে ‘অল আদিবাসী স্টুডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন অব আসাম’ বিক্ষোভ প্রদর্শন করছিল। ছবিতে তার মুখ না ঢেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার অভিযোগ উঠেছে যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে।

সংবাদমাধ্যমকে তিনি আরও জানিয়েছেন, আদিত্যনাথের দাবি ঝুটো। ওই বিক্ষোভ প্রদর্শন কর্মসূচিতে তিনি কোনও দলের হয়েই উপস্থিত ছিলেন না। পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায়ের মানুষকে আদিবাসীর তকমা পেতে সাহায্য করতেই তিনি ওই মিছিলে হেঁটেছিলেন।

তার বক্তব্য, ‘যোগী আদিত্যনাথ কিছু না জেনেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বলে দিলেন যে কংগ্রেস আমার উপর হামলা চালিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী যখন ‘বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও’ বলছেন, তখন তারই দলের যোগী আদিত্যনাথ এমনটা কী করে করতে পারলেন?’

 

নগ্ন ছবি প্রকাশের অভিযোগে মুখ্যমন্ত্রী যোগীর বিরুদ্ধে মামলা শুধু যোগী আদিত্যনাথই নন, এই মামলায় আর এক অভিযুক্ত হলেন আসাম লোকসভার সাংসদ রাম প্রসাদ শর্মা। তিনিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই নারীর ছবি শেয়ার করেছেন বলে অভিযোগ।

 

এই বিষয়ে রাম প্রসাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘এটা কোনও মিথ্যা ঘটনা নয়। আমি ছবিটি শেয়ার করেছিলাম কারণ আমি চেয়েছিলাম আক্রান্ত নারী যেন তার প্রাপ্য বিচার পান।’

শেয়ার করুন