চিরনিদ্রায় সমাহিত হলেন লাকী আখান্দ

lucky-songসিলেটের সকাল ডেস্ক : কিংবদন্তি সুরকার, সঙ্গীতশিল্পী ও মুক্তিযোদ্ধা লাকী আখান্দকে সমাহিত করা হয়েছে।

শনিবার (২২ এপ্রিল) দুপুর পৌনে ৩টার দিকে রাজধানীর মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে চিননিদ্রায় শায়িত হলেনেএই গুনি ব্যাক্তিত্ব।

এর আগে, শনিবার সকাল ১০টার দিকে লাকী আখন্দের জন্মস্থান আরমানিটোলার জামে মসজিদ মাঠে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে শিল্পীর মরদেহ নেওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সেখানে তাকে রাষ্ট্রীয়ভাবে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের পরিচালনায় সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে লাকী আখন্দের কফিনে ফুল দিয়ে তার প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সর্বস্তরের মানুষ। শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বাদ জোহর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে তার দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

লাকী আখান্দকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান-তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল ইনু, মেয়র আনিসুল হক, সংস্কৃতি সচিব ইবরাহিম হোসেন খান, গণসংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর, গীতিকার কবির বকুল, সংগীতশিল্পী খোরশেদ আলম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ ম স আরেফিন সিদ্দিকী, সাংসদ পংকজ দেবনাথ ছাড়াও সংগীত-রাজনৈতিক অঙ্গণের বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ।

গুণী এই সংগীতজ্ঞ অনেক দিন ধরেই মরণব্যাধী ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করছিলেন। ছয় মাসের চিকিৎসা শেষে থাইল্যান্ডের ব্যাংকক থেকে ২০১৬ সালের ২৫ মার্চ দেশে ফেরেন তিনি। সেখানে কেমোথেরাপি নেওয়ার পর শারীরিক অবস্থার অনেকটা উন্নতি হয়েছিল তার। একই বছরের জুনে আবারও থেরাপির জন্য ব্যাংকক যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আর্থিক সংকটের কারণে পরে আর তার সেখানে যাওয়া হয়ে উঠেনি।

শেয়ার করুন