সুরমা নদীতে বালু উত্তোলনে আদালতের নিষেধাজ্ঞা

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

সিলেটের সকাল রিপোর্ট:সিলেটের ওপর দিয়ে প্রবাহিত সুরমা নদী থেকে অনিয়ন্ত্রিত ও আইনবহির্ভুতভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) মহামান্য হাইকোর্টে একটি রিট মামলা (রীট আবেদন নং ১৬১/২০১৭) দায়ের করে। রীট আবেদনের প্রেক্ষিতে বুধবার বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী এবং বিচারপতি ইজাজুল হক আকন্দ এর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ সুরমা নদীর (পেশনেওয়াজ) বালু মহালকে সিলেটের ঘোষিত বালুমহালের তালিকা থেকে কেন বাদ দেওয়া হবে না- মর্মে রুল নিশি জারি করেন। সেইসাথে প্রবাহিত সুরমা নদী থেকে অনিয়ন্ত্রিত ও আইনবহির্ভুতভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে মামলার ১০ নং বিবাদী, মো: মাসুদ আহমদকে( প্রোপাইটর, মেসার্স মাহমুদ তাজারতি এজেন্সী, মহাজন পট্টি, সিলেট) বালু উত্তোলন বন্ধ রাখতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আদালত। একইসাথে জেলা প্রশাসক, সিলেট কে সুরমা নদীভাঙ্গনের সম্ভাব্যতা যাচাই করে আদালতে একটি রিপোর্ট দাখিল করতে নির্দেশনা দিয়েছেন হাইকোর্ট।
সুরমা নদীতে অনিয়ন্ত্রিত বালু উত্তোলনের ফলে সিলেট অঞ্চলে বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে। বালু উত্তোলনের ফলে দক্ষিণ সুরমা নদী ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় নদী ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে নদীটির স্বাভাবিক প্রবাহ নষ্ট হয়ে গিয়েছে এবং এর বিরুপ প্রভাব নদীর তীরবর্তী কৃষিজমি, আবাসিক এলাকার উপর পড়েছে। উল্লেখিত অবস্থা থেকে সুরমা নদী রক্ষার স্বার্থেই বেলা রীট মামলাটি দায়ের করে।
বেলার পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন এডভোকেট মিনহাজুল হক চৌধুরী।

শেয়ার করুন