ভাষা’র মাসকে বরণ করে নিতে সিলেটে সম্মিলিত নাট্য পরিষদের বর্ণমালার মিছিল

001সিলেটের সকাল রিপোর্ট : বায়ান্নর চেতনা সর্বত্র ছড়িয়ে দেওয়ার অঙ্গীকারকে সামনে রেখে ও বর্ণমালার মিছিলের মধ্য দিয়ে সিলেটে ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিকে বরণ করা হয়েছে। সিলেটের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের চালিকাশক্তি সম্মিলিত নাট্য পরিষদ এর আয়োজন করে। মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা বায়ান্নর চেতনা সর্বত্র ছড়িয়ে দেয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় সিলেট জেলা পরিষদ প্রাঙ্গণ থেকে স্বরবর্ণ ও ব্যঞ্জন বর্ণের অক্ষর নিয়ে সাজানো হয় বর্ণমালার মিছিল। সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের সঞ্চালনায় ভাষা সৈনিক অধ্যাপক মোঃ আব্দুল আজিজ বর্ণমালার মিছিলের সূচনা করেন।

সূচনা বক্তব্যে অধ্যাপক আজিজ বলেন, ভাষা আন্দোলনের হাত ধরে বাঙ্গালীর মহান মুক্তিযুদ্ধের অর্জন। বার বার বাঙ্গালী জাতি রক্ত দিয়ে অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামী জয়ী হয়েছে। বাঙ্গালী জাতির এই জয় যাত্রা আর কেউ কখনও থামাতে পারবে না।

বর্ণমালার মিছিলটি জেলা পরিষদ প্রাঙ্গন থেকে শুরু হয়ে জিন্দাবাজার হয়ে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে সর্বাঙ্গে ছিল লাল সবুজের বিশাল পতাকা। মিছিলে উচ্চারিত হয়- একুশের কথামালা ও গান। সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বর্ণমালার মিছিল পৌঁছানোর পর একুশ ও বাঙ্গালীর চেতনার উপর পরিবেশিত হয় বাহান্ন জন নৃত্যশিল্পীর পরিবেশনায় ছন্দ নৃত্যালয়ের দেশাত্মবোধক নৃত্য। এটি পরিচালনা করেন নৃত্য প্রশিক্ষক বিপুল শর্মা।
002
বর্ণমালার মিছিল উপলক্ষে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন- নাট্য পরিষদের সভাপতি অনুপ কুমার দেব। বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সিলেট মহানগর ইউনিট কমান্ডার ও সম্মিলিত নাট্য পরিষদের প্রাক্তন পরিচালক ভবতোষ রায় বর্মণ রানা, সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আই.সি.টি) শহীদ মোহাম্মদ সাইদুল হক।

সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজতকান্তি গুপ্ত বলেন,২০১৪ সালে দেশে প্রথমবারের মতো ভাষার মাস বরণে বর্ণমালার মিছিল আয়োজন করে নাট্যপরিষদ, সিলেট। এবার তৃতীয়বার উদ্যাপিত হলো ব্যতিক্রমী এই আয়োজন।

অনুষ্ঠানের শেষভাগে ফেব্রুয়ারী মাসে সম্মিলিত নাট্যপরিষদের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

শেয়ার করুন