অপরাধী পুলিশের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স : সিলেটে আইজিপি

777777777সিলেটের সকাল : পুলিশের মহা-পরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহিদুল হক বলেছেন, আইনের দৃষ্টি সবাই সমান। অপরাধ করলে প্রত্যেককেই বিচারের মুখোমুখী হতে হবে। এই ক্ষেত্রে কোনো পক্ষপাত হবে না। অপরাধী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধেও তাদের জিরো টলারেন্স রয়েছে। শনিবার সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে সেমিনার থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইজিপি এ কথা বলেন।

হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশ (এইচআরপিবি) ‘প্রবাসীদের অধিকার নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে প্রশাসনের ভূমিকা’ শীর্ষক এই সেমিনারের আয়োজন করে। (এইচআরপিবি)-এর প্রেসিডেন্ট এডভোকেট মনজিল মোরসেদের সভাপতিত্বে সেমিনারের প্রথম সেশনে অতিথি বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- সিলেটের জেলা ও দায়রা জজ মনির আহমদ পাটওয়ারী, সিলেট মহানগর দায়রা জজ আকবর হোসেন মৃধা, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, যুক্তরাজ্যের টাওয়ার হ্যামলেট কাউন্সিলের স্পীকার এমএ মুকিত এমবিই এবং এইচআরপিবি ইউকে শাখার সহ সভাপতি এলাইছ মিয়া মতিন। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশ (এইচআরপিবি), যুক্তরাজ্য শাখার সভাপতি সাংবাদিক মো. রহমত আলী।
পুলিশের ইমেজ সংকট প্রসঙ্গে আইজিপি আরো বলেন, কোন পুলিশ সদস্য যদি বড় ধরণের ফৌজদারী ঘটনার সাথে জড়িত থাকে- তবে তার বিরুদ্ধে তদন্ত ফৌজদারি মামলাও নেয়া হবে। অপরাধী পুলিশ সদস্যদের দৃশ্যমান শান্তি হচ্ছে না-এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা বলা যাবে না। কোন পুলিশ সদস্যের অপরাধের তথ্য চাইলে আমরা তা দিতে প্রস্তুত।
প্রবাসী হয়রানি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমরা প্রবাসীদের কল্যাণ  সর্বোচ্চ কল্যাণ ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চাই। কেননা, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে তাদের বিরাট অবদান রয়েছে। তিনি বলেন, প্রবাসী নিরাপত্তা ও কল্যাণ নিশ্চিত করতে প্রতিটি জেলায় প্রবাসী হেল্প ডেস্ক রয়েছে। আমরা এ ডেস্কের কার্যক্রম মনিটরিং করছি। তিনি বলেন, প্রবাসীদের অভিযোগগুলো যদি ঠিকমতো আসে-তাহলে আমরা তা তদন্ত করে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে পারব।
দুটি সেশনে অনুষ্ঠিতব্য এই সেমিনারের দ্বিতীয় অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  র‌্যাপিড একশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-এর মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ।

শেয়ার করুন