বিপর্যয় থেকে স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় ফিরছে যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ

100423aসিলেটের সকাল ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনসহ পূর্বাঞ্চলের সাড়ে আট কোটি মানুষ স্নোজিলার বিপর্যয় থেকে স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় ফিরে আসতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যে এ অঞ্চলের ১৪টি অঙ্গরাজ্যে থেকে ভ্রমণ ও গাড়ি চলাচলের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে।

নিউ ইয়র্কের মেয়র বিল ডি ব্লাসিও জানিয়েছেন, সবচেয়ে জনবহুল শহর নিউ ইয়র্কে ১৮৬৯ সালের পর সবচেয়ে বেশি তুষারপাত হয়েছে। নিউ ইয়র্কের পার্শ্ববর্তী পাঁচটি অঙ্গরাজ্যে প্রায় তিন ফুট তুষারপাতে এ পর্যন্ত ২৮ জনের মৃত্যু  হয়েছে বলে জানা গেছে। গাড়ি দুর্ঘটনা, কার্বন মনোঅক্সাইড বিষক্রিয়া ও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন তাঁরা। তুষারঝড়কে স্নোমেগেডন ও স্নোজিলা হিসেবে অভিহিত করা হচ্ছে। দুর্বল হয়ে তুষারঝড়টি এখন আটলান্টিক মহাসাগরের দিকে এগুচ্ছে। স্নোজিলায় প্রায় সাড়ে আট কোটি মানুষ দুর্ভোগের মুখে পড়ে। একপর্যায়ে সাড়ে তিন লাখ মানুষ বিদ্যুৎ ও অন্যান্য সরবরাহ সংকটে পড়ে।

ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ায় সর্বোচ্চ ৪২ ইঞ্চি তুষার পড়েছে। এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটনে এখনও মেট্রোরেল বন্ধ রয়েছে। বিমানপথও স্বাভাবিক হয়নি। তুষারঝড়ের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চলে সাত হাজার ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। সোমবারও বাতিল করা হয়েছে ৬১৫ টি ফ্লাইট। এসব অঞ্চলে হাজার হাজার মিউনিসিপ্যাল কর্মী তুষার পরিষ্কারের কাজে নেমেছে। বিভিন্ন শহরের ব্যস্ত শহরগুলো থেকে তুষার সরানো সম্ভব হলেও এখ‌নও ছোট ছোট রাস্তাগুলোতে তুষার সরিয়ে ফেলার কাজ চলছে।

শেয়ার করুন