খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার অভিযোগ আদালতে

ফা্ইল ছবি

ফা্ইল ছবি

ডেস্ক রিপোর্ট:মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে মন্তব্য করায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে মামলার আবেদন করা হয়েছে। সোমবার বিচারিক আদালতে এ আবেদন করা হয়েছে। মামলা আমলা নেওয়ার বিষয় নিয়ে বেলা ১১টার পর মুখ্য মহানগর হাকিম মোহাম্মদ রাশেদ তালুকদারের আদালতে মামলার শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

সোমবার সকালে ঢাকার সিএমএম আদালতে মামলাটি দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মমতাজ উদ্দিন আহমেদ মেহেদী।

গত ২১ ডিসেম্বর রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশে খালেদা জিয়া বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক আছে। আজকে বলা হয়, এত লাখ লোক শহীদ হয়েছে। এটা নিয়েও অনেক বিতর্ক আছে।’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম উল্লেখ না করে খালেদা জিয়া দাবি করেন, তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা চাননি। তিনি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চেয়েছিলেন। জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা না দিলে মুক্তিযুদ্ধ হতো না।

২৩ ডিসেম্বর খালেদার রাষ্ট্রদ্রোহী বক্তব্য প্রত্যাহার করতে বাদী তাকে উকিশ নোটিশ পাঠান। কিন্তু এর জবাব না পাওয়ায় ফৌজদারী কার্যবিধির ১৯৬ ধারায় তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার করার অনুমতি চেয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন তিনি। ২১ জানুয়ারি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার অনুমোদন দেয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। রবিবার (২৪ জানুয়ারি) এ অনুমোদনের চিঠি হাতে পেয়ে সোমবার বিচারিক আদালতে মামলা করলেন মমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী।

আইনজীবী মমতাজ উদ্দিন এই রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা করতে সম্প্রতি সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কাছে সহায়তা চান। এরপর সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেওয়া হয়। এই ধারাবাহিকতায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে অনুমতি চেয়ে আবেদন করেন ওই আইনজীবী। মন্ত্রণালয় গত বৃহস্পতিবার তাকে মামলা করার অনুমতি দেন।

শেয়ার করুন