দিরাইয়ে দেবরের হাতুড়িপেটায় ভাবীর মৃত্যু

sunamganjদিরাই সংবাদদাতা : সুনামগঞ্জে দিরাই উপজেলায় দেবরের হাতুড়িপেটায় হামিদা  বেগম (৬০) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। এ সময় সীমা (৩) নামে এক শিশু আহত হয়।

সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় দিরাই পৌরসভার নতুন বাগবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ দেবর আবু লেইস ওরফে আজলু মিয়াকে আটক করে।

মৃত হামিদা উপজেলার মাতাগাঁও আব্দুল কাইয়ুমের স্ত্রী এবং আহত সীমা নতুন বাগবাড়ি গ্রামের মাফের আলী মেয়ে ও মৃতের নাতনী। শিশুটিকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, পৈত্রিক সম্পত্তি বিক্রি নিয়ে উপজেলার জগদল ইউনিয়নের মাতারগাঁও গ্রামের আজলু ও আব্দুল কাইয়ুমের মধ্যে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল। কয়েকদিন আগে হামিদা তার মেয়ের বাড়ি দিরাই পৌরসভার নতুন বাগবাড়ি গ্রামে বেড়াতে আসেন এবং প্রায় সাপ্তাহ খানেক আগে আজলুও সেখানে বেড়াতে আসেন।

সোমবার সন্ধ্যায় সম্পত্তি বিক্রি নিয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে আজলু হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ভাবী হামিদাকে হত্যা করেন। এ সময় শিশু সীমা এগিয়ে এলে তাকেও পিটিয়ে আহত করেন আজলু।

দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিসুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, ময়নাতদন্তের জন্য হামিদার মৃতদেহ সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

শেয়ার করুন