সিলেটে কাল থেকে শুরু হচ্ছে আইসিটি এক্সপো

pic sssসিলেটের সকাল : সিলেটে আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে হালনাগাদ তথ্য প্রযুক্তির বর্ণিল প্রদর্শনী আইসিটি এক্সপো। ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে সিলেটের জনসাধারণকে বর্তমান বিশ্বের নিত্য নতুন প্রযুক্তির সাথে পরিচিত করে তোলাই এ প্রদর্শণীর মূল লক্ষ্য। সকালে সিলেট নগরীর রিকাবীবাজারস্থ মোহাম্মদ আলী জিমনেসিয়াম হলে মেলার উদ্বোধন হবে। সিলেট চেম্বার অব কমার্স ও বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি, সিলেট আয়োজিত পাঁচ দিন ব্যাপী এ মেলা চলবে ২ জানুয়ারি পর্যন্ত।
ডিজিটাল এক্সপো উপলক্ষ্যে সোমবার বিকেলে সিলেট চেম্বার মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে সংশ্লিষ্টরা জানান, আজ মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর বিদুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্ঠা ড. তৌফিক এলাহি চৌধুরী বীর বিক্রম।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি, সিলেট শাখার চেয়ারম্যান ও “আইসিটি এক্সপো সিলেট ২০১৫”এর আহবায়ক এনামুল কুদ্দুছ চৌধুরী। তিনি জানান, সিলেটের মানুষকে উন্নত তথ্য-প্রযুক্তির সাথে পরিচিত করে আধুনিক জীবনধারার দিকে নিয়ে যেতে “আইসিটি এক্সপো সিলেট ২০১৫” আমাদের ৪র্থ প্রয়াস। এ প্রয়াসে দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিও আমাদের সাথে সম্পৃক্ত হওয়ায় সিলেট চেম্বারের বর্তমান পরিচালনা পরিষদকে ধন্যবাদ জানিয়ে আয়োজকরা বলেন- মেলায় মোট ৩৪ টি প্রতিষ্টানের ৫৪ টি স্টল থাকবে। প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ৮ পর্যন্ত চলবে মেলা। মেলায় প্লাটিনাম স্পন্সর হিসাবে রয়েছে বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ মোবাইল ফোন কোম্পানী গ্রামীনফোন, গোল্ড স্পন্সর হিসাবে রয়েছে স্বনামধন্য প্রযুক্তি পণ্য সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল ব্র্যান্ড ও এক্সট্রিম, অফিসিয়াল ব্যাংক হিসাবে রয়েছে পূবালী ব্যাংক লিঃ, প্রদর্শনীর মিডিয়া পার্টনার হিসাবে রয়েছে যমুনা টিভি, চ্যানেল এস ও দৈনিক উত্তরপূর্ব পত্রিকা, ডিজিটাল পার্টনার হিসাবে রয়েছে ডিজিটা ইন্টারেকটিভ এবং ক্যাবল টিভি পার্টনার হিসাবে রয়েছে এসসিএস। মেলায় সেমিনার, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, সেলফি কনটেস্ট, ফ্রি ইন্টারনেট ও গেমিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। এতে প্রবেশ ফি রাখা হয়েছে ১০ টাকা। তবে শিক্ষার্থীরা আইডি কার্ড প্রদর্শন করে ফি ছাড়াই প্রবেশ করতে পারবে। প্রদর্শনীর ৪র্থ দিন ১ জানুয়ারি সন্ধ্যা ৬ টায় মেলা প্রাঙ্গনে “আইসিটি খাতে সিলেটের সমস্যা ও সম্ভাবনা” শীর্ষক একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। সেমিনারে তথ্য-প্রযুক্তিবিদ, বিশেষজ্ঞ, কর্মী, উদ্যোক্তা, সিলেট চেম্বারের সদস্য, বিসিএস, সিলেট শাখার সদস্য ও প্রযুক্তিপ্রেমী ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করবেন। অভিজ্ঞতা ও জ্ঞান বিনিময়ের অবারিত সুযোগ থাকছে এ সেমিনারে। সংবাদ সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি‘র সভাপতি সালাহ্ উদ্দিন আলী আহমদ।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- সিলেট চেম্বারের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. মামুন কিবরিয়া সুমন, পরিচালক মো. হিজকিল গুলজার, খন্দকার সিপার আহমদ, লায়েছ উদ্দিন, এহতেশামুল হক চৌধুরী, বশিরুল হক, প্লাটিনাম স্পন্সর প্রতিনিধি গ্রামীনফোনের ম্যানেজার-রিজিওনাল সেল্স আব্দুল্লাহ্ মামুন খান, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির আবু সাইদ মো. তায়েফ, জয়নুল আকতার চৌধুরী, মুজিবুর রহমান স্বাধীন, পার্থ চৌধুরী, ফরহাদ হোসেন ফরহাদ প্রমুখ।

মেলায় ইন্টারনেট ফ্রি ব্যবহারের সুযোগ থাকছে দর্শনার্থীদের। আর শিশুদের জন্য থাকছে বিনামূল্যে মজাদার ভিডিও গেম খেলার সুযোগ। এজন্য পৃথক গেমিং জোনের ব্যবস্থা থাকছে প্রদর্শনীতে। দর্শনার্থীদের জন্য ফ্রি ইন্টারনেট সুবিধা প্রদান করবে স্বনামধন্য কোম্পানী বিটিএস লিঃ।
প্রদর্শনীর তৃতীয় দিন ৩১ ডিসেম্বর দুপুর সাড়ে ১১টায় শিশুদের জন্য থাকছে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। বয়সভিত্তিক তিনটি গ্রুপে স্কুলের শিক্ষার্থীরা এতে অংশ নিতে পারবে। প্রতিযোগিতার গ্রুপ ও বিষয়গুলো হলো Ñ ১। ‘ক’ গ্রুপ (নার্সারী থেকে ৪র্থ শ্রেণী), বিষয়: গ্রামবাংলা, আঁকার উপকরণ: ইচ্ছামত ২। ‘খ’ গ্রুপ (৫ম থেকে ৭ম শ্রেণী), বিষয়: মুক্তিযুদ্ধ, আঁকার উপকরণ: কালার পেন্সিল, এবং ৩। ‘গ’ গ্রুপ (৮ম থেকে ১০ শ্রেণী), বিষয়: ডিজিটাল বাংলাদেশ, আাঁকার উপকরণ: জল রং। প্রতিযোগীদের রেজিস্ট্রেশনের জন্য ০১৭১২-৭৩২৩২৯, ০১৭১৬-৮৯১১৮৬ নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানানো যাচ্ছে। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হবে। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতাটি স্পন্সর করেছেন দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র সম্মানিত সিনিয়র সহ সভাপতি মো. মামুন কিবরিয়া সুমন।
প্রদর্শনীর ৪র্থ দিন সকাল ১০ টা থেকে দর্শনার্থীদের জন্য সেলফি কনটেস্ট এর ব্যবস্থা করা হয়েছে। নির্ধারিত দিন মেলা প্রাঙ্গনে উপস্থিত হয়ে দর্শনার্থীরা সেলফি তুলে ুওঈঞ ঊঢচঙ ঝণখঐঊঞ ২০১৫” এর ফেইসবুক পেইজে আপলোড করতে পারবেন। পরবর্তীতে সেলফিগুলো বাছাই করে ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকারীকে আকর্ষণীয় তথ্য-প্রযুক্তিপণ্য পুরষ্কার হিসাবে প্রদান করা হবে।
মেলায় দর্শনার্থীদের জন্য টিকেটের ওপর র‌্যাফেল ড্রয়ের ব্যবস্থা থাকবে। এতে নেটবুকসহ বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় তথ্যপ্রযুক্তি পণ্য বিজয়ীদের পুরস্কার হিসেবে দেয়া হবে।
প্রদর্শনী উপলক্ষে পৃষ্ঠপোষক, সহযোগী ও প্রদর্শক প্রতিষ্ঠানগুলো দিচ্ছে পণ্য ও সেবা বিক্রিতে আকর্ষণীয় মূল্য ছাড়। সেই সঙ্গে বিশেষ উপহার এবং বিশেষ সুবিধা। ফলে দর্শনার্থীরা আকর্ষণীয় মূল্যে পছন্দের প্রযুক্তিপণ্য কেনাকাটা করতে পারবেন।

শেয়ার করুন